default-image

তথ্যপ্রযুক্তি সেবা প্রান্তিক পর্যায়ে পৌঁছে দিতে দ্রুতগতির ইন্টারনেট প্রয়োজন হবে। ২৭ ডিসেম্বর ইউনিয়ন ইনফরমেশন অ্যান্ড সার্ভিস সেন্টার প্রকল্পের কর্মকর্তাদের আয়োজনে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিসিসি অডিটেরিয়ামে এমপাওয়ারিং রুরাল কমিউনিটিস-রিচিং দ্যা আনরিচড শীর্ষক সেমিনারে এই মন্তব্য করেন বক্তারা। প্রান্তিক জনপদে দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা দিতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ কাজ করছে বলেও জানান তাঁরা। বাংলাগভ ডটনেট ও ইনফো সরকার-২ ও ৩ প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন শেষ হলে প্রান্তিক পর্যায়ে ইন্টারনেট সুবিধা পৌঁছানো যাবে। তথ্য প্রযুক্তি বিভাগের এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের যুগ্মসচিব ও প্রকল্প পরিচালক সুশান্ত কুমার সাহার সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন আইসিটি বিভাগের সচিব কামাল উদ্দিন আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিসিসির নির্বাহী পরিচালক এসএম আশরাফুল ইসলাম এবং এলআইসিটি প্রকল্পের পরামর্শক আবুল কালাম আজাদ। সেমিনারে এডিসি (আইসিটি), উপজেলা নির্বাহী অফিসার, এসি (আইসিটি) ও ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তাসহ ৩০০ জন অংশ নেন।
ইউডিসি (ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের) উদ্যোক্তাদের কার্যক্রম বিবেচনা করে তিনজন উদ্যোক্তাকে পুরস্কার দেয়া হয়।
তথ্য প্রযুক্তি বিভাগ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, সার্ক ডেভেলপমেন্ট ফান্ডের (এসডিএফ) আওতায় এ প্রকল্পটি বাংলাদেশ, নেপাল, ভুটান ও মালদ্বীপে একযোগে বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রকল্পের আওতায় দেশের পিছিয়ে পড়া দুর্গম ২০০টি ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্রে (বর্তমান নাম ইউডিসি) ৪০০টি ল্যাপটপ, ২০০টি প্রিন্টার, ২০০টি স্ক্যানার, ২০০ সেটফার্নিচার, ২০০টি মডেম, ও ৮৫ সেট সোলার প্যানেল প্রদান করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন