বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইয়াহুর কাছে যে চিঠি পাঠানো হয়েছে, সেখানে প্রাপক হিসেবে ম্যারিসা মেয়ারের উল্লেখ করা হয়েছে। অথচ ম্যারিসা সেই ২০১৭ সাল থেকেই ইয়াহুর প্রধান নির্বাহীর দায়িত্বে নেই। সেটি চার বছর আগের ঘটনা, সাম্প্রতিক কোনো পরিবর্তন নয়।

আমাজন, এওএল, অ্যাপল, এটিঅ্যান্ডটি, ফেসবুক, গুগল, মাইক্রোসফট, স্ন্যাপ, টি-মোবাইল, টুইটার, ইউএস সেলুলার এবং ভেরাইজনের প্রধানদের কাছেও চিঠি পাঠিয়েছেন ওই কংগ্রেস সদস্যরা। সেগুলো আপাতদৃষ্টে নির্ভুল বলেই মনে হচ্ছে। তবে কংগ্রেস সদস্যরা সময়ের চেয়ে খানিকটা পিছিয়ে আছেন বলে লেখা হয়েছে এনগ্যাজেটের প্রতিবেদনে।

গত বছরগুলোতে ফেসবুক, গুগল, টুইটারসহ অনেক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের কংগ্রেসে তলব করা হয়। তবে কংগ্রেস সদস্যদের প্রশ্নের ধরন থেকে পরিষ্কার যে তাঁরা প্রযুক্তি সম্পর্কে তেমন ধারণা রাখেন না। এতে প্রশ্ন ওঠে, তাঁরা যখন প্রযুক্তিবিষয়ক আইন প্রণয়ন বা পরিবর্তন করবেন, তখন সেটা কতটুকু কার্যকর হবে। ইয়াহুর সাবেক সিইওকে পাঠানো চিঠিতে কেবল এক তা কাগজ আর খামের অপচয় হয়েছে। ভুল আইনে এত অল্পে পার পাওয়া যাবে না বলে এনগ্যাজেটের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন