বিজ্ঞাপন

গতকাল বুধবার টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘আমাদের ভাবনার কারণ হলো, বিটকয়েন মাইনিং এবং লেনদেনের ফলে জীবাশ্ম জ্বালানি, বিশেষ করে কয়লার ব্যবহার বেড়ে যাওয়া। নানা দিক থেকেই ক্রিপ্টোকারেন্সি একটি চমৎকার ধারণা এবং এর ভবিষ্যৎ সম্ভাবনাময় বলেই আমাদের বিশ্বাস। তবে সেটা পরিবেশের বড় ক্ষতি করে হতে পারে না।’

অ্যালগোরিদমের সমাধান দিয়ে ডিজিটাল মুদ্রা তৈরিকে মাইনিং বলা হয়। মাইনিংয়ে ব্যবহৃত কম্পিউটার সার্ভারগুলো বিপুল পরিমাণে বিদ্যুৎ খরচ করে। আর বিদ্যুৎ উৎপন্নে অনেক দেশেই নির্ভর করা হয় কয়লার ওপর। ডিজিটাল মুদ্রার এই দিকটি অনেক দিন ধরেই সমালোচিত হয়ে আসছে। ইলন মাস্ক তা এত দিন জানতেন না, এমনটা হওয়ার কথা নয়।

default-image

গত ফেব্রুয়ারিতে বিটকয়েনে ১৫০ কোটি ডলার বিনিয়োগ এবং এর বিনিময়ে গাড়ি কেনার সুবিধার ঘোষণা দেয় টেসলা। মার্চের শেষে মাস্ক টুইট করেন, এখন থেকে মানুষ বিটিকয়েনে গাড়ি কিনতে পারবে।

টেসলা এখনো বিটকয়েনে গাড়ি বিক্রির বিষয়টি বিবেচনায় রেখেছে বলে জানিয়েছেন মাস্ক। গতকাল বুধবার তিনি লিখেছেন, ‘টেসলা কোনো বিটকয়েন বিক্রি করবে না এবং মাইনিংয়ে নির্ভরযোগ্য জ্বালানি ব্যবহার করলে লেনদেনে আমরা সেগুলো ব্যবহার করতে চাই। অন্যান্য ডিজিটাল মুদ্রায় লেনদেন চালুর চেষ্টাও আমরা করছি, যা বিটকয়েনের এক শতাংশের চেয়ে কম বিদ্যুৎ খরচ করে চলতে পারবে।’

ডোজকয়েন নামে আরেকটি ডিজিটাল মুদ্রায় গাড়ি কেনার সুবিধা দেওয়া উচিত কি না, তা জানতে চেয়ে দিন কয়েক আগে টুইট করেছিলেন মাস্ক।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন