বিজ্ঞাপন

ইলন মাস্কের মহাকাশের টিকিট কেনার ব্যাপারটি দ্য ওয়ালস্ট্রিট জার্নালকে নিশ্চিত করেছে ভার্জিন গ্যালকটিক। তবে ঠিক কবে নাগাদ তিনি নভোযানে চড়ে বসবেন, তা পরিষ্কার নয়। ব্র্যানসন এরই মধ্যে পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের বাইরে থেকে ঘুরে এসেছেন। আর জেফ বেজোস তাঁর নভোযান তৈরির প্রতিষ্ঠান ব্লু অরিজিনের প্রথম অভিযানে ২০ জুলাই ক্ষণিকের জন্য মহাকাশ থেকে ঘুরে আসবেন ঠিক করে রেখেছেন।

ইলন মাস্কের প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্স অবশ্য আরও বড় লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। এরই মধ্যে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে (আইএসএস) নভোচারী এবং মালামাল পরিবহনের কাজ করেছে। একই রকেট বারবার ব্যবহারের জন্য নিয়মিত পরীক্ষা-নিরীক্ষাও চালিয়ে যাচ্ছে। তা ছাড়া পর্যটকদের জন্য আইএসএসের ভ্রমণ প্যাকেজও চালু করতে যাচ্ছে স্পেসএক্স।

ব্র্যানসনের সঙ্গে ইলন মাস্কের যেমন বন্ধুত্ব, বেজোসের সঙ্গে তেমন নয়। ব্র্যানসন আর বেজোসের মধ্যে এরই মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতার মনোভাব দেখা যাচ্ছে। গত সপ্তাহে ভার্জিন গ্যালকটিকের নভোযানকে উঁচু দিয়ে ওড়া বিমান হিসেবে টুইটারে উল্লেখ করে ব্লু অরিজিন।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন