বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সে টুইটের পর অনেকেই বেশ আগ্রহী হয়ে ওঠেন। মহাকাশে জন্মানো উদ্ভিদের ফসল নিয়ে প্রশ্ন করেন। অনেকে মহাকাশে ফসল ফলানোর প্রক্রিয়া জানতে চেয়েছেন। কেউ কেউ জানতে চেয়েছেন মাধ্যাকর্ষণের অভাবে কীভাবে টাকোর ভেতরের উপাদানগুলো একসঙ্গে জুড়ে ছিল।

এক ব্যবহারকারী টাকো তৈরির ভিডিও দিতে বলেছেন। তিনি লিখেছেন, টুকরাগুলো না ছড়িয়ে মরিচ কুচি করলেন কীভাবে?

আরেক ব্যবহারকারী বিশাল এক টাকোর অ্যানিমেটেড ছবি দিয়েছেন, যেটি মহাকাশে ভেসে বেড়াচ্ছে। ক্যাপশনে লেখেন, তো আপনি কি বলতে চাইছেন এই টাকো দুনিয়ার বাইরের (আউট অব দিজ ওয়ার্ল্ড)?

আরও মজার সব কমেন্ট এসেছে। একজন বলেছেন, মহাকাশে জন্মানো মরিচ পৃথিবীতে নিলামে অনেক দামে বিক্রি হতে পারে। সঙ্গে যোগ করেন, এর দাম এত হতে পারে যে গোটা মহাকাশকেন্দ্র হয়তো নতুন করে গঠন করা সম্ভব হবে।

আরেকজন কেবল মরিচে সন্তুষ্ট নন। মজা করে বলেছেন, আইএসএসে মুরগির খামার করা উচিত। মুরগি থেকে ডিম, ডিম থেকে মুরগি—এভাবে নাকি নভোচারীদের খাবারের চাহিদা মেটানো যেতে পারে।

প্রযুক্তি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন