মার্সিডিজ দেখাল বৈদ্যুতিক গাড়ি কেমন হওয়া উচিত

মার্সিডিজ দেখাল বৈদ্যুতিক গাড়ি কেমন হওয়া উচিত

বৈদ্যুতিক গাড়ি নিয়ে টেসলার বেশ বড় গলা। যেন বৈদ্যুতিক গাড়িকে নতুন করে সংজ্ঞায়িত করেছে তারা। তা কিছুটা ঠিক। এই ঘরানার গাড়ি জনপ্রিয়করণে মার্কিন প্রতিষ্ঠানটির অবদান অস্বীকার করার জো নেই। তবে জার্মান ব্র্যান্ড মার্সিডিজ বেঞ্জ দেখাল, কেমন হওয়া উচিত বৈদ্যুতিক গাড়ি।

২০২২ মডেলের মার্সিডিজ বেঞ্জ ইকিউএস এখনো পথে নামেনি। বিশদ কারিগরি খুঁটিনাটি মেলেনি এখনো। তবু কেবল ভেতর আর বাইরের ছবিতেই মানুষের মন জয় করেছে।

default-image
default-image
default-image

সেডান ধাঁচের মার্সিডিজ বেঞ্জ ইকিউএসের ড্যাশবোর্ডের জায়গার পুরোটা জুড়ে থাকবে ডিসপ্লে। চালকের সামনে থেকে শুরু করে পাশের আসনের আরোহীর সামনে পর্যন্ত। মার্সিডিজ বেঞ্জ সে ডিসপ্লের নাম দিয়েছে হাইপারস্ক্রিন। তাতে বিভিন্ন তথ্য দেখাবে। আর ব্যবহার না হলে ব্যাকগ্রাউন্ড ছবি দেখাবে। হাইপারস্ক্রিন চালাতে যে কম্পিউটার ব্যবহার করা হয়েছে, তাতে আট কোরের সিপিইউ এবং ২৪ গিগাবাইট র‍্যাম থাকবে। ইকিউএসের আরেকটি সংস্করণ আসছে। তাতে আকারে ছোট ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে।

default-image
default-image
বিজ্ঞাপন

বায়ু চলাচলের পথে এইচইপিএ ফিল্টার থাকছে। এটি বায়ুবাহিত ৯৯ শতাংশ কণা, ৮৬ শতাংশ ভাইরাস এবং ৯০ শতাংশ ব্যাকটেরিয়া আটকে দিতে পারে।

এ বছরেই ইউরোপে গাড়িটির বাজারজাত শুরু হবে বলে শোনা যাচ্ছে। তবে বাইরের নকশা এখনো পুরোপুরি প্রকাশ করেনি মার্সিডিজ বেঞ্জ। ১৫ এপ্রিলে উন্মোচনের কথা রয়েছে। সেদিন জানা যাবে বিস্তারিত। তবে প্রথম পরীক্ষামূলক সংস্করণে যে নকশা দেখিয়েছে, সেটিও চমৎকার।

default-image
default-image

গাড়ি বৈদ্যুতিক হওয়ায় অন্যান্য জ্বালানিতে চলা গাড়ির মতো ইঞ্জিনের গর্জন শোনা যাবে না। সেই অভাব পূরণের জন্য গাড়ি চালানোর সময় ইকিউএসে ইঞ্জিনের নকল গর্জন শোনার ব্যবস্থা আছে। আবার চাইলে ধীরলয়ের শ্রুতিমধুর শব্দও শোনা যাবে।

default-image
default-image
প্রযুক্তি থেকে আরও দেখুন
মন্তব্য করুন