তথ্য আদান-প্রদানে ঝুঁকি নিরূপণ

সেশন-১ থেকে আমরা তথ্য আদান-প্রদানের মাধ্যমগুলো চিহ্নিত করতে পেরেছি। কিন্তু সব তথ্যই আমরা সবার কাছে আদান-প্রদান করব না। অনেক সময় আমাদের ভুল বা অসচেতনতায় বা অনুমতি ছাড়াই তথ্য আদান-প্রদান হয়ে যেতে পারে। এটি হলো তথ্য আদান-প্রদানের ঝুঁকি। ঝুঁকিতে আমাদের সামাজিক, আর্থিক ও মানসিক ক্ষতি হতে পারে। এ জন্য আমাদের খুবই সতর্ক থাকা উচিত। আমরা দলে আলোচনার মাধ্যমে অনুসন্ধান করে বের করব যে তথ্য আদান-প্রদানে কী কী ঝুঁকি থাকার আশঙ্কা রয়েছে। কাজটি করতে আমরা একটি জরিপ করতে পারি। জরিপ পরিচালনার জন্য আমরা নিজেরা কয়েকটি প্রশ্নসংবলিত তথ্য আদান-প্রদানে সম্ভাব্য ঝুঁকি কী হতে পারে তা খুঁজতে একটি প্রশ্নমালা তৈরি করব।

আরও পড়ুন

ষষ্ঠ শ্রেণির নতুন বই - ডিজিটাল প্রযুক্তি | তথ্য আদান-প্রদান মাধ্যমগুলো চিহ্নিতকরণ

আমরা নিচের তিনটি তথ্য জানতে তাদের সাক্ষাত্কার নেব।

১. কীভাবে তথ্য আদান-প্রদান ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে।

২. কোন ধরনের ব্যক্তিগত তথ্য ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে।

৩. তথ্য আদান-প্রদান ঝুঁকিপূর্ণ হলে কী কী ক্ষতি হতে পারে।

প্রকাশ কুমার দাস, সহকারী অধ্যাপক, মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা

আরও পড়ুন

ষষ্ঠ শ্রেণির নতুন বই - ইংরেজি | Make Your Friend Smile (Situation four)