বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ফরহাদ বলেন, ‘স্বল্পদৈর্ঘ্য হলেও যাত্রাটা ছিল পূর্ণদৈর্ঘ্য ফিল্মের মতো। চিত্রনাট্য লিখে দীর্ঘদিন ধরে অপেক্ষা করতে হয়েছে। কাস্টিং চূড়ান্ত করতেও সময় লেগেছে। সব মিলিয়ে সময় নিয়ে কাজটি করেছি। চরকির মতো বড় প্ল্যাটফর্মে ছবিটা যাচ্ছে, এটা আমার জন্য খুবই খুশির সংবাদ। আশা করছি দর্শকদের ভালো লাগবে।’

default-image

এই সময়ে গল্পটি কেন বলার প্রয়োজন মনে করলেন, এমন প্রশ্নে নির্মাতা বলেন, ‘গল্পটি সময়োপযোগী। এখানে কিছু জীবনের স্ট্রাগল দেখানো হয়েছে। সুখী হওয়ার জন্য বা কিছু পাওয়ার জন্য স্বপ্নে বিভোর হয়ে প্রায়ই মানুষ ভুল, অপরিকল্পিত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলে। যা অনেক সময় জীবনকে আরও বেশি কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি করে। জীবনের সম্পর্কগুলোই তখন হারিয়ে যায়।

default-image

জীবন হয়ে পড়ে বিবর্ণ। সবাই কমবেশি এই ভুলগুলো করি। চরিত্রের মধ্যে দর্শক নিজেদের একটু হলেও খুঁজে পাবেন।’
কাজটা করে সানজিদা প্রীতির ভালো লেগেছে, ‘দুই শ্রেণির দুই যুগলের জীবনের টানাপেড়েন, জটিলতা, চাওয়া–পাওয়া, এসব নিয়েই গল্প। পরিচালক যত্ন নিয়ে বানিয়েছেন।’

অতিথির গল্প ও চিত্রনাট্য লিখেছেন কাঠবিড়ালি সিনেমার নায়ক আসাদুজ্জামান আবীর। আরও অভিনয় করছেন এ কে আজাদ সেতু, সুষমা সরকার, জায়নাল আবেদিন, আবদুল্লাহ রানা, জয়নাল আবেদিন খান, ফারজানা মুক্ত, নওশাদ আকরাম, কে এম কনক, মিরাজ বুলেট প্রমুখ।

default-image
বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন