চূড়ান্ত আয়োজনের খুব কাছাকাছি। তাই এখন জেনে নেওয়ার পালা মেরিল–প্রথম আলো তারকা জরিপ পুরস্কারে কে কে আছেন মনোনয়ন তালিকায়? তাঁদের অনুভূতিগুলোও জেনে নিন এবার...

default-image

সেরা গায়ক
ইমরান (হৃদয়ের পাতায়)
গত বছর শ্রোতাদের কাছে গানটির বেশ সাড়া ছিল। এ কারণেই হয়তো এর জন্য মনোনয়ন পেয়েছি। এ নিয়ে পর পর দুবার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেলাম। চূড়ান্ত পুরস্কার পাব কি না, জানি না। তবে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের জন্য এভাবে বারবার মনোনয়ন পাওয়াটাই আমার কাছে পুরস্কারের সমতুল্য।
জেমস (দেশা আসছে)
দর্শক জরিপে মনোয়ন পেয়ে আমি আনন্দিত। দেশপ্রেম নিয়ে তৈরি এ গানের জন্য মনোনীত হয়ে ভালো লাগা আরও একটু বেশি।
তাহসান (উদ্দেশ্য নেই)
অনেক দিন পর অ্যালবাম বের করলাম। সেই অ্যালবামের গানের জন্যই মনোনয়ন। ভালো লাগা নিঃসন্দেহে অনেক। তবে মজার বিষয় হলো, একই সঙ্গে গায়ক ও অভিনেতা দুই বিভাগেই মনোনয়ন পেয়ে আনন্দের মাত্রা একটু বেশিই বেড়ে গেছে।
বাপ্পা মজুমদার (জানি না কোন মন্তরে)
পুরস্কার কে পাবে জানি না। তাই শুভকামনা রইল সবার জন্য। নিজের জন্য তো বটেই। এই মুহূর্তে মনোনয়ন পেয়েই অনেক ভালো লাগছে। কারণ, এর সঙ্গে জড়িয়ে আছে প্রিয় শ্রোতা ও পাঠকদের আকুণ্ঠ ভালোবাসা। এটাও আমার কাজের জন্য বড় একটি পুরস্কার। ধন্যবাদ এই পুরস্কারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে।

default-image

সেরা গায়িকা
কনা (তারকাঁটা)
আমার মনে হয় এবার নিয়ে পর পর পাঁচবার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারে মনোনয়ন পেলাম। পুরস্কার পাওয়ার চেয়ে মনোনয়ন পাওয়াটাই এখন বেশি উপভোগ করছি। মনোনয়নপ্রাপ্ত চারজনের মধ্যে নিজের নামটি আছে। এটাই আমার কাছে একধরনের পুরস্কার পাওয়া।
ঝিলিক (প্রথম প্রেম)
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের জন্য প্রথম মনোনয়ন পেলাম। আমি রোমাঞ্চিত। পুরস্কার না পেলেও কোনো দুঃখ নেই। মঞ্চে চূড়ান্ত পুরস্কার ঘোষণার আগে মনোনয়নের তালিকায় আমার নামটি দেখানো হবে। এটাই আমার জন্য বড় পুরস্কার, এতেই আমি খুশি
দোলা (তুমি ছাড়া)
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার বাংলাদেশের সবচেয়ে দামি পুরস্কার। এখানে আমি প্রথম মনোনয়ন পেয়েছি। সবচেয়ে বড় কথা, যে গানের জন্য মনোনয়ন পেয়েছি, এটি চলচ্চিত্রের গান। রাজত্ব ছবির। চলচ্চিত্রে আমার গান গাওয়ার বয়স বেশি দিনের নয়। অল্প সময়েই চলচ্চিত্রের গানের জন্য মনোনয়ন পেলাম। এটি আমার কাছে একটি বড় অর্জন মনে করি।
ন্যান্সি (ভালো না বাসলে বোঝা কি যায়)
এর আগে পর পর পাঁচবার মনোনয়ন পেয়ে পাঁচবারই মেরিল-প্রথম আলো তারকা জরিপ পুরস্কার পেয়েছি। এ নিয়ে ষষ্ঠবারের মতো মনোনয়ন পেলাম। যে গানটির জন্য এবার মনোনয়ন পেয়েছি গানটি হানিমুন ছবির। গানটি শ্রোতাদের কাছে যেমন প্রিয়, তেমনি আমার কাছেও। গানটির জন্য মনোনয়ন পাওয়ায় আমি আনন্দিত।

default-image

সেরা চলচ্চিত্র অভিনেতা
অনন্ত জলিল (মোস্ট ওয়েলকাম ২)
দর্শক আমাকে ভালোবাসে। আমি দর্শকদের ভালোবাসি। এটাই বড় প্রাপ্তি। তবুও মনোনয়ন প্রাপ্তিতে আনন্দ অন্যরকম।
আরিফিন শুভ (অগ্নি)
অগ্নি আমার জন্য ইতিহাস। এই ছবিতে শুটিং করতে গিয়ে মারাত্মক আহত হই। দীর্ঘদিন বিশ্রামে থাকতে হয়েছে। এখনো কোনো ছবির শুটিং করতে গেলে আহত জায়গাটি নিজের কথা জানান দেয়। মনে পড়ে অগ্নি ছবির শুটিংয়ের কথা। শেষ পর্যন্ত এই ছবিটির জন্যই আমি মনোনয়ন পেয়েছি। দর্শকেরা আমাকে ভোট দেওয়ার মাধ্যমে কষ্টের সার্থকতা দিয়েছে। সবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ।
ফেরদৌস (বৃহন্নলা)
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পাওয়াটাই আমার কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়। এর আগেও আমি মনোনয়ন পেয়েছি। পুরস্কার পাই না পাই, মনোনয়ন পাওয়াকে বেশি উপভোগ করি। প্রতিবছর চূড়ান্ত পুরস্কারের জন্য যে কজনকে মনোনয়ন দেওয়া হয়, তাঁদের মধ্যে নিজের নামটি দেখলেই ভালো লাগে। যে ছবিতে অভিনয়ের জন্য আমাকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে, ছবিটি দেশের বাইরেও পুরস্কার জিতেছে।
শাকিব খান (হিরো দ্য সুপারস্টার)
এসকে মুভিজের প্রথম প্রযোজনা এটি। বাজেটের দিক থেকে ছবিটি ঢাকার চলচ্চিত্রকে একটা ধাক্কা দিয়েছে। ইদানীং ঢালিউডে এত বড় বাজেটের ছবি তৈরি হয়নি। ছবির গল্পও ভালো। ফলে ছবিটি দর্শকের পছন্দের তালিকায় চলে আসে। নিজের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের প্রথম ছবিতে অভিনয় করে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারে মনোনয়ন পেয়েছি, দারুণ লাগছে।

default-image

সেরা চলচ্চিত্র অভিনেত্রী
অপু বিশ্বাস (ডেয়ারিং লাভার)
গত বছর এই ছবিটি দর্শকের আলোচনায় ছিল। দর্শকের কাছে আমার অভিনয় ভালো লেগেছে বলেই তাঁরা সরাসরি ভোট দিয়ে আমাকে এ পর্যায়ে এনেছেন। এর আগেও একাধিকবার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেয়েছি। প্রতিবারের মতো এবারও মনোনয়ন পাওয়ায় ভালো লাগছে।
বিদ্যা সিনহা মিম (তারকাঁটা)
কাজ করার আগে ছবিটি নিয়ে অনেক বেশি উত্তেজনা ছিল। কিন্তু ছবিটি মুক্তির পর প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে দেখার পর কিছুটা হতাশ হয়েছিলাম। তবে ছবিতে যতটুকু অংশজুড়ে আমার কাজ ছিল, ততটুকু দেখেই দর্শক আমার অভিনয় পছন্দ করেছেন এবং আমাকে ভোট দিয়ে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের চূড়ান্ত পর্বে আসতে সহযোগিতা করেছেন। এ জন্য আমার খুব ভালো লাগছে।
মাহি (অগ্নি)
প্রায় দুই বছর ধরে চলচ্চিত্রে কাজ করছি। এর আগে কোনো তারকা জরিপ পুরস্কার প্রতিযোগিতায় আমার নাম আসেনি। এবারই প্রথম অভিনয়ের জন্য মনোনয়ন পেলাম। তা-ও আবার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের মতো পুরস্কার প্রতিযোগিতায়। চূড়ান্তভাবে কে পুরস্কারটি পাবেন, তা আমি জানি না। তবে মনোনয়ন পাওয়া চারজনের মধ্যে আমার নামটি আছে, এতেই আমি খুশি।
মৌসুমী (এক কাপ চা)
দর্শকের সরাসরি ভোটে এক কাপ চা ছবির জন্য মনোনয়ন পেয়েছি। দর্শকেরা আমার অভিনয় পছন্দ করে ভোট দিয়েছেন। এ জন্য আমি দর্শকের কাছে কৃতজ্ঞ। মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পাওয়াটা যে কারোর কাছেই সম্মানের বিষয়। ফেরদৌসের প্রথম প্রযোজিত ছবি এটি। সে ক্ষেত্রে এই ছবিতে অভিনয়ের জন্য ফেরদৌসও যদি মনোনয়ন পেতেন, তাহলে আরও ভালো হতো।

default-image

সেরা নবীন অভিনয়শিল্পী
তানজিন তিশা (ইউটার্ন)
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের মনোনয়ন পাওয়াটাই আমার কাছে স্বপ্নের মতো। সেরা নবীন অভিনয়শিল্পীর মনোনয়ন পাওয়ায় সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। এই মনোনয়ন পাওয়ায় আমি যে কী পরিমাণ খুশি, তা বোঝাতে পারব না।
নূর ইমরান মিঠু (পিঁপড়াবিদ্যা)
আমার কাছে বিষয়টি খুবই আনন্দের। এই অভিজ্ঞতা আমার জন্য একেবারেই নতুন। মনোনয়ন পেয়ে নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে হচ্ছে।
মিষ্টি জান্নাত (লাভ স্টেশন)
কল্পনাই করিনি এই পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পাব। আমার কাছে বিষয়টি স্বপ্ন মনে হচ্ছে। তবে এ ধরনের সম্মানজনক পুরস্কারে মনোনয়ন পেলে ভালো কাজের আগ্রহ আরও বেড়ে যায়। সেরা নবীন অভিনয়শিল্পীর মনোনয়নের তালিকায় নিজের নামটি আমার ভালো লাগছে। আর চূড়ান্ত পুরস্কার পেয়ে গেলে আরও বেশি ভালো লাগবে।
শিরিন শিলা (হিটম্যান)
আমি কখনোই ভাবিনি মেরিল-প্রথম আলো সেরা নবীন অভিনয়শিল্পী পুরস্কারের মনোনয়নের তালিকায় আমার নাম আসবে। খবরটি পাওয়ার পর খুবই অবাক হয়েছি। আনন্দে ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। মনোনয়ন পেয়েছি, এটাই আমার জন্য বড় পাওয়া।
সাবিলা নূর (ইউটার্ন)
পত্রিকার পাতায় দেখে আমার বিশ্বাস হচ্ছিল না। বারবার মনোনয়নের তালিকায় নিজের ছবিটি দেখছিলাম। পরে দেখলাম সত্যি সত্যিই আমি। আমার জন্য এটি অবাক করা ঘটনা। যে নাটকটির জন্য মনোনয়ন পেয়েছি, সেই নাটকটির পরিচালকের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। কারণ, নাটকটিতে অভিনয়ের সুযোগ না পেলে আজ এত বড় মাপের পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেতাম না।

default-image

সেরা টিভি অভিনেতা
চঞ্চল চৌধুরী (লাল খাম বনাম নীল খাম)
মনোনয়ন পেলে তো ভালোই লাগে, তবে পুরস্কার পেলে আরও বেশি ভালো লাগে। মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার এর আগে আমি বেশ কয়েকবার পেয়েছি। তাই স্বাভাবিকভাবে এই পুরস্কার পাওয়ার আনন্দটা কোনোভাবেই হারাতে চাই না। এখন আপাতত মনোনয়ন পাওয়ার আনন্দের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকি! দেখা যাক কী হয়।
জাহিদ হাসান (ফরমাল-ইন)
মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার আমাদের শিল্পীদের কাজের ক্ষেত্রে বছর শেষে একটি বড় ধরনের সম্মান ও স্বীকৃতি। পুরস্কার পাব কি পাব না, সেটা বড় কথা নয়। পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেয়েছি, সেটাই অনেক আনন্দের বিষয়। অনেক আগ্রহ এবং মনোযোগ দিয়ে ফরমাল-ইন নাটকটির কাজ করেছি। ধন্যবাদ ফরমাল-ইন-এর ইউনিটের সবাইকে।
তাহসান (কথাবন্ধু মিথিলা)
অভিনেতা হিসেবে মনোনয়ন পাব ভাবিনি। আমি তো অভিনেতা নই। তবে দর্শক যে এভাবেও আমাকে গ্রহণ করেছেন, তা আমার কাছে পুরস্কার জেতার চেয়ে অনেক বড় পাওয়া। তাই মনোনয়ন পেয়েই অনেক আনন্দিত আমি। ধন্যবাদ জানাচ্ছি দর্শক ও নাটকের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে।
মোশাররফ করিম (সেই রকম পানখোর)
প্রতিক্রিয়া? কী বলব? শুনে তো আনন্দই লাগছে। আচ্ছা! প্রথমে নাটকটি নিয়েই বলি। অনেক কষ্ট করে কাজটি করতে হয়েছিল। বিশেষ করে পান খাওয়ার দৃশ্যগুলো ছিল মনে রাখার মতো। যে পরিমাণ পান চিবোতে হয়েছিল, তাতেই মুখের অবস্থার একদম বারোটা বেজে গিয়েছিল। যাক, শেষ পর্যন্ত দর্শকদের কাছে নাটকটি ভালো লেগেছে, সেটাই অনেক আনন্দের ব্যাপার। সেই নাটকের জন্য মনোনয়ন পেয়েছি, সেটা আরও আনন্দের। ধন্যবাদ নাট্যকার, পরিচালক ও নাটকটির নেপথ্যের সবাইকে।

default-image

সেরা টিভি অভিনেত্রী
অগ্নিলা (লাল খাম বনাম নীল খাম)
মনোনয়ন পেতে কার না ভালো লাগে। আমারও অনেক ভালো লাগছে। ভালো কাজের জন্য মনোনয়ন পেলে ভালো কাজ করার আগ্রহটা বেড়ে যায়। এই নাটকের পুরো ইউনিট, দর্শক ও প্রথম আলোর সব পাঠকদের জানাই ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা।
তিশা (বিজলী)
বিজলী নাটকে আমার চরিত্রটি ছিল খুবই চ্যালেঞ্জিং। এতে অভিনয়ের জন্যই মনোনয়ন পেয়েছি। ভালো লাগছে। এই আনন্দের অংশীদার নাটকটির নাট্যকার, পরিচালক ও কলাকুশলীদের সবাই। তাঁদের আন্তরিক সহযোগিতা ছাড়া এই চরিত্রটি করা আমার পক্ষে কঠিন ছিল। একই সঙ্গে ধন্যবাদ জানাই দর্শক ও পাঠকদের, যাঁদের ভালোবাসায় এই মনোনয়ন পেয়েছি। শুভকামনা সবার জন্য।
ফারহানা মিলি (ভালোবাসার দ্বিতীয় গল্প)
ভালো কাজের জন্য প্রশংসা বা স্বীকৃতি ভালো কাজের ক্ষেত্রে অনুপ্রেরণা জোগায়। অনেক আগ্রহ ও যত্ন করে কাজটি করেছিলাম। ভালোবাসার দ্বিতীয় গল্প নাটকটির জন্য সেরা টিভি অভিনয়শিল্পী বিভাগে আমার মনোনয়ন এসেছে, তাই ধন্যবাদ নাটকের ইউনিট, দর্শক ও প্রথম আলোর পাঠক—সবাইকে।
বিদ্যা সিনহা মিম (নভেম্বর রেইন)
এই নাটকটি করার আগে অনেক কষ্ট করতে হয়েছে আমাকে। প্রথমে নাটকের চিত্রনাট্য বুঝতে পারছিলাম না। চিত্রনাট্যটি নিয়ে পরিচালক সঙ্গে কয়েকবার বসার পর আমরা শুটিং শুরু করি। তবে চূড়ান্তভাবে কাজ করার সময় অনেক মজা হয়েছে। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো, নাটকটিতে আমার স্বামীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়। শেষ পর্যন্ত এ নাটকের জন্যই মনোনয়ন পেলাম। আমি মনে করি, কষ্ট সার্থক হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন