অপেক্ষার পালা শেষ। এবার মেরিল–প্রথম আলো সমালোচক পুরস্কারে মনোনয়ন পেয়েছেন কোন শিল্পীরা এখন তা–ই জানার পালা। ঝটপট জেনে নিন মনোনয়নপ্রাপ্ত শিল্পীদের অনুভূতি...
মনোনয়নপ্রাপ্তদের প্রতিক্রিয়া বর্ণানুক্রমে ছাপা হলো

default-image

শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র
পিঁপড়াবিদ্যা, প্রযোজক: ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেড
ফরিদুর রেজা সাগর: কয়েক বছর ধরেই আমাদের নির্মাণ করা ছবি ধারাবাহিকভাবে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের মনোনয়ন ও পুরস্কার পাচ্ছে। পুরস্কার-পরবর্তী সময়ে নতুন কাজ করার ক্ষেত্রে অনুপ্রেরণা জোগায়। দায়িত্ব বাড়িয়ে দেয়।

বৃহন্নলা, প্রযোজক: এটিএন বাংলা ও ফিল্ম হকার (মাহফুজুর রহমান ও মুরাদ পারভেজ)
মাহফুজুর রহমান: অনেক বছর ধরেই চলচ্চিত্রশিল্পের সঙ্গে যুক্ত থেকে ভালো ছবির পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছি। এরই ধারাবাহিকতায় বৃহন্নলা নির্মাণ। ছবিটি এরই মধ্যে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রশংসা কুড়িয়েছে। মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার পেলে আরও ভালো লাগবে।

মেঘমল্লার, প্রযোজক: বেঙ্গল ক্রিয়েশন
এন রাশেদ চৌধুরী: মেঘমল্লার নিয়ে আমরা অনেক আশাবাদী ছিলাম। পরিচালক অনেক যত্ন নিয়ে ছবিটি বানিয়েছেন। এই ছবিটি মনোনয়ন পাওয়ায় আমরা খুশি। ভালো লাগছে।

default-image

শ্রেষ্ঠ পরিচালক
মোস্তফা সরয়ার ফারুকী (পিঁপড়াবিদ্যা)
ধ্যানভঙ্গ ঘটে বলে আমি গত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশের কোনো পুরস্কারের জন্য কাজ জমা দেই না। পিঁপড়াবিদ্যা আমার অজ্ঞাতে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম জমা দিয়েছে। যদিও এটা জমা দেওয়ার আগে আমার সঙ্গে আলোচনা করে নেওয়া চুক্তির অংশ ছিল। যাই হোক প্রথম আলো ও ইমপ্রেসের প্রতি সম্মান দেখিয়ে আমি আমার অংশগ্রহণ প্রত্যাহার করে নিচ্ছি না। এর পর থেকে বাংলাদেশের কোনো প্রতিযোগিতায় আমাকে অংশগ্রহণ করতে দেখবেন না। তবে দেশের সম্মান জড়িত বলে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করছি।
মুরাদ পারভেজ (বৃহন্নলা)
বৃহন্নলা ছবির অভিনেতা-অভিনেত্রীসহ সব কলাকুশলীকে ধন্যবাদ। আপনাদের একনিষ্ঠ পরিশ্রমই আমাকে সেরা পরিচালকের মনোনয়ন এনে দিয়েছে। চন্দ্রগ্রহণ ছবির জন্য প্রথম মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার পেয়েছিলাম। এবার বৃহন্নলার জন্য পেলেও ভালো লাগবে। পুরস্কার সব সময়ের জন্যই আনন্দের।
মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ (তারকাঁটা)
ছবি বানানোই আমার প্রথম স্বপ্ন। আর এই স্বপ্নের জন্য পুরস্কার পাওয়ার মনোনয়ন পেয়েছি। আমি এত আনন্দিত যে ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। আমি অভিভূত।

default-image

শ্রেষ্ঠ টিভি নাটক নির্দেশক
অমিতাভ রেজা (সারফেস)
অনেক দিন পর নাটক নির্মাণ করেছিলাম। তবে সারফেস নাটকটির পেছনে সবাই অনেক পরিশ্রম করেছেন। মনোনয়ন পেয়ে ভালো লেগেছে। পুরস্কার পেলে আরও ভালো লাগবে।
মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ (লাল খাম বনাম নীল খাম)
আট বছর ধরে নাটক নির্মাণ করছি। কখনো মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পাইনি। জুরিবোর্ড আমাকে মনোনয়ন দিয়েছে। এতেই আমি আনন্দিত।
সুমন আনোয়ার (রাতারগুল)
একটি কথা বলতে চাই, সৎভাবে কোনো কাজ করলে তার স্বীকৃতি পাওয়া যায়। আমি জোরগলায় বলতে পারি, নির্মাণের ক্ষেত্রে এখনো অসৎ হতে পারিনি। সম্ভবত এ কারণেই মেরিল-প্রথম আলোর মতো পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছি।

default-image

সেরা টিভি চিত্রনাট্যকার
মনিরুল ইসলাম রুবেল (প্রতিদিন শনিবার)
কাজের স্বীকৃতি পেলে অবশ্যই ভালো লাগে। সমালোচকদের ধন্যবাদ আমার কাজটি তাঁরা পছন্দ করেছেন। একই সঙ্গে নির্মাতাকেও ধন্যবাদ।
মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ (লাল খাম বনাম নীল খাম)
অবশ্যই আনন্দের। মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার অবশ্যই সম্মানজনক স্বীকৃতি। মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারটি আমার কাছে পুরস্কার পাওয়ার মতোই মনে হচ্ছে।
সুমন আনোয়ার (রাতারগুল)
স্বাভাবিকভাবেই আনন্দ লাগছে। ভালো কাজের স্বীকৃতি পাওয়ার সুযোগ হয়েছে। আরও ভালো করার ব্যাপারটি সামনে চলে এসেছে।

default-image

সেরা টিভি অভিনেত্রী
অগ্নিলা (লাল খাম বনাম নীল খাম)
অনেক ভালো লাগছে।
জাকিয়া বারী মম (অক্ষয় কোম্পানির জুতো)
কাজটা ভালো হয়েছে। নাটকটির নির্মাতা অনেক যত্ন নিয়ে কাজটি করেছেন, তাঁকে ধন্যবাদ।
সানজিদা প্রীতি (সারফেস)
আমি ভাবিনি সারফেস নাটকের জন্য আমি মনোনীত হব। যখন জানলাম মনোনয়ন পেয়েছি, তখন থেকেই দারুণ ভালো লাগছে। আমি অনেক আনন্দিত।

default-image

শ্রেষ্ঠ টিভি অভিনেতা
চঞ্চল চৌধুরী (লাল খাম বনাম নীল খাম)
সমালোচক বিভাগে পুরস্কার পাওয়া অনেক বেশি আনন্দের। কারণ, সম্মানিত জুরিবোর্ড এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেন। নাটকটির পরিচালক মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজসহ পুরো টিমকে ধন্যবাদ জানাই।
মামুনুর রশীদ (রাতারগুল)
ভালো লাগছে। এর আগে টিভি অভিনেতা হিসেবে মেরিল-প্রথম আলো সমালোচক পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পাইনি। এবার পেয়ে আমি আনন্দিত।
রওনক হাসান (রাতারগুল)
এই টেলিছবির জন্য অনেক পরিশ্রম করেছি। টানা আট দিন নানা ধরনের প্রতিকূল অবস্থার মধ্যে রাতারগুলে শুটিং করতে হয়েছে। প্রতিনিয়ত পরিচালকের সঙ্গে ঝগড়া হয়েছে। এটার স্বীকৃতি পাচ্ছি। পুরস্কার পেলে আরও ভালো লাগবে।

default-image

শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী
মাহিয়া মাহি (অগ্নি)
আমি অনেক আনন্দিত। জুরিবোর্ডের বিচারে আমি সেরা তিনের তালিকায় আছি এটা আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া।
মৌসুমী (এক কাপ চা)
ভালো লাগছে। সম্মানিত জুরিবোর্ড আমার অভিনীত এই ছবিটি পছন্দ করেছেন। আমার অভিনয় পছন্দ করেছেন। এটা সত্যিই আনন্দের।
সোহানা সাবা (বৃহন্নলা)
জীবনে প্রথম চলচ্চিত্র আয়নার জন্য পেয়েছিলাম মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার। আজ অনেক বছর পর বৃহন্নলা ছবির জন্য মনোনয়ন পেলাম। আমার সহ-অভিনেতা, অভিনেত্রী, প্রযোজক ও পরিচালককে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। পুরস্কার পেলে খুবই ভালো লাগবে, কারণ এই ছবিতে অভিনয় ছাড়াও আরও অনেক দায়িত্ব পালন করেছি আমি।

default-image

শ্রেষ্ঠ অভিনেতা
আরিফিন শুভ (তারকাঁটা)
একটা কাজের পেছনে অনেক কিছুই থাকে। থাকে পুরো একটা টিমের অবদান। তাই ছবি নিয়ে সবার আশা-আকাঙ্ক্ষাও থাকে। মেরিল-প্রথম আলো সে রকমই একটি আকাঙ্ক্ষার জায়গা। তারকাঁটা মনোনয়ন পাওয়ায় ভালো লাগছে। যেকোনো কাজের স্বীকৃতি পেলে ভালো কাজ করার অনুপ্রেরণা তৈরি হয়।
আজাদ আবুল কামাল (বৃহন্নলা)
আমি মনোনয়ন নিয়মিত পাই। কিন্তু পুরস্কার পাই না। এখন মনোনয়ন পাওয়াটা অভ্যাসের মতো হয়ে গেছে। দেখা যাক এবার কী হয়।
নূর ইমরান মিঠু (পিঁপড়াবিদ্যা)
আমি তো আসলে অভিনেতা নই। এই সবকিছুর কৃতিত্ব মোস্তফা সরয়ার ফারুকী ভাইয়ের। তাই সবার আগে তাঁকে ধন্যবাদ। তিনি না থাকলে হয়তো আমার এই পর্যায়ে আসা হতো না। এরপর প্রথম আলো ও জুরি বোর্ডের সদস্যদের ধন্যবাদ, আমাকে মনোনয়ন দেওয়ার জন্য।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0