default-image

এ বছরের মাঝামাঝি সময় মার্কিন দর্শকেরা দেখেছেন বাংলাদেশি গাড়ি ডিজাইনার নিজামউদ্দিন আউলিয়ার টিভি শো। এই নিজামউদ্দিন আউলিয়া বিশ্বজুড়ে লিপু নামে পরিচিত। অনুষ্ঠানটির নাম ছিল ‘লিপু অ্যান্ড পিটবুল’। সে সময় এ নিয়ে খবর ছড়িয়েছিল অনেক। শুধু মার্কিন চ্যানেলগুলোয় এটি প্রচার হওয়ায় বাংলাদেশের দর্শকেরা দেখতে পারেননি অনুষ্ঠানটি। এবার সেই সুযোগ মিলল। গত শনিবার থেকে ‘হিস্ট্রি চ্যানেল ১৮’-এর ভারতীয় নেটওয়ার্কে এর প্রচার শুরু হয়েছে।
‘লিপু অ্যান্ড পিটবুল’ অনুষ্ঠানটি মূলত একটি রিয়েলিটি শো। এতে বাংলাদেশি গাড়ি ডিজাইনার লিপু যুক্তরাষ্ট্রের মাস্টার ম্যাকানিক ও একটি অটোগ্যারেজ শপের মালিক স্টিভ পিটবুল ট্রিমবোলির সঙ্গে এক হয়ে গাড়ির মেকওভার বা রূপ বদল করে থাকেন। পুরোনো গাড়িকে ভেঙেচুরে নতুন রূপে তৈরি করেন। একদিকে পিটবুল গাড়ির ভেতরের যন্ত্রাংশ ঠিকঠাক করে পুরোনো গাড়িকে আধুনিক রূপ দেন, অন্যদিকে লিপু গাড়ির বাইরের চেহারা বদলে দেন তাঁর চিন্তা ও কল্পনা দিয়ে।
এ অনুষ্ঠানের প্রথম সিজন এটি। প্রথম সিজনে মোট আটটি পর্ব তৈরি হয়েছে। গত ২৩ জুন ‘হিস্ট্রি চ্যানেল’-এর মার্কিন নেটওয়ার্কে ‘লিপু অ্যান্ড পিটবুল’-এর প্রিমিয়ার হয়।
ভারতীয় নেটওয়ার্কে ‘লিপু অ্যান্ড পিটবুল’ আগামীকাল দেখানো হবে বিকেল সাড়ে চারটায়। অনুষ্ঠানের পরের পর্বগুলো প্রচারের সময় জানা যাবে www.historyindia.com/schedule ঠিকানায়। গত শনিবার ‘লিপু অ্যান্ড পিটবুল’ অনুষ্ঠানে দেখানো হয়, পিটবুল যেখানে বেশ গোছানো কায়দায় গাড়ির ভেতরের কলকবজাকে এক করে গাড়ি পুনর্নির্মাণ করেছেন, সেখানে লিপু চলেছেন একেবারে ভিন্ন পথে। সাধারণত গাড়ি ডিজাইনাররা প্রথমে কাগজে নকশা এঁকে তারপর লোহালক্কড় ভেঙে তৈরি করেন গাড়ির বডি। কিন্তু অনুষ্ঠানে লিপু বলেন, ওসব নকশা আঁকিবুঁকিতে আগ্রহ নেই তাঁর। বুক ফুলিয়েই বলেন, ‘বাঙালি ওয়ে’তে কাজ করেন তিনি। বাংলাদেশ থেকে নিয়ে যাওয়া তাঁর হাতুড়ি, রেঞ্চ দিয়ে পিটিয়ে লোহার পাতকে নানা রূপ দেন। লিপুর এসব পাগলামি বিস্মিত করেছে অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া বাকি মার্কিন গাড়ির বিশেষজ্ঞদেরও।
এর আগে লিপু ‘চপ শপ: লন্ডন গ্যারেজ’ এবং ডিসকভারি চ্যানেলে ‘বাংলা ব্যাংগার্স’ নামে দুটি অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন