এর মধ্যেই তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় থেকে ঢাকায় এসে শুটিংয়ের অনুমতি পেয়েছেন নির্মাতা। তবে এ জন্য ইতিহাস বিকৃত না করে সঠিক তথ্য তুলে আনা, অশ্লীলতা পরিহার, সেন্সর বোর্ডের আগে মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন নেওয়াসহ মোট ১৩টি শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়েছে।

তথ্যচিত্র নির্মাণের জন্য কৃষ্ণেন্দু ও মধুরিমা ছাড়াও ঢাকায় আসছেন যুক্তরাজ্যের চিত্রগ্রাহক জেরেমি আলেক্সান্ডার, সহকারী পরিচালক মৈনাক গুহসহ আট কলাকুশলীর একটি দল।

default-image

এর আগে ২০০০ সালে ‘হার্ভেস্টিং হাঙ্গার’ ও ২০১৪ সালে ‘ফরগটেন টাইগার্স’ নামে দুটি তথ্যচিত্র নির্মাণ করে পরিচিতি পান কৃষ্ণেন্দু। পাশাপাশি নিজের প্রযোজনা আর্থকেয়ার ফিল্মসের ব্যানারে কয়েকটি তথ্যচিত্র প্রযোজনাও করেছেন তিনি। কৃষ্ণেন্দু ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে জুরির দায়িত্বও পালন করেছেন। তাঁর স্ত্রী মধুরিমাও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে যুক্ত। বেশ কয়েকটির টিভি সিরিজ প্রযোজনা করেছেন মধুরিমা।

বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন