default-image

ইনস্টাগ্রামে এক দীর্ঘ পোস্টে সেলেনা বলেন, ‘বিশে পা দেওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত সময়টা ছিল সুখের, কঠিন ও দারুণ কিছু মুহূর্তে ভরপুর, যা কখনোই ভুলতে পারব না। এসব ঘটনার প্রতিটি আমাকে নতুন রূপ দিয়েছে। যার ফল আজকের আমি। যদিও আমি এখনো শিখছি। তবে এখন কোন বিষয় গুরুত্বপূর্ণ ও কী চাই, তা নিয়ে আরও বেশি নিশ্চিত থাকি।’

default-image

২০ থেকে ৩০-এ পা দেওয়া পর্যন্ত চলার পথের প্রতিটি অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নিয়েছেন জানিয়ে সেলেনা আরও বলেন, ‘আশপাশের অনেক শক্তিশালী মানুষের প্রেরণায় সামনে এগিয়ে চলেছি। এখন বলতে পারি, ত্রিশে পা দেওয়া মানে কী, সেটা বুঝতে পারছি।’ জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানানোর জন্য বন্ধু, ভক্তসহ সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘আমার জীবনের অংশ হওয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। সামনে আরও একটা দশক পার করতে হবে।’

default-image

৩০-‍এ পা দেওয়ার পর সেলেনা জানান নতুন বছরের ইচ্ছাও, ‘এ বছর আমার সবচেয়ে বড় ইচ্ছা রেয়ার ইমপ্যাক্ট ফান্ডে অনুদান দেওয়া, যাতে মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করা যায়। সবাই মিলে আমরা মানসিক স্বাস্থ্য-সম্পর্কিত উদ্বেগগুলো কমাতে পারি ও পুঁজি জোগাড় করতে পারি।’

বিনোদন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন