বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

পানামা পেপারস মামলার তদন্ত চলছে দীর্ঘ সময় ধরে। এই মামলার সঙ্গে বচ্চন পরিবারের নাম জড়িয়ে গেছে। ঐশ্বরিয়াকে এই মামলা–সংক্রান্ত জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সমন পাঠিয়েছে ইডি। এর আগে সাবেক এই বিশ্বসুন্দরী তাঁর বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ মিথ্যা বলে দাবি করে আসছেন। পানামা পেপারস মামলায় রয়েছে অভিনেতা, শিল্পপতি, ক্রীড়াবিদসহ ৫০০ ভারতীয় নাগরিকের নাম। অমিতাভ বচ্চন, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনসহ বেশ কয়েকজন অভিনয়শিল্পীর নাম এই মামলায় জড়িয়ে গেছে। তাঁদের বিরুদ্ধে আয়কর ফাঁকির অভিযোগও রয়েছে। এই মামলায় অমিতাভ বচ্চনের নাম আসার পর তিনি বলেছিলেন, ভারতের সব নিয়মকানুন মেনেই তিনি বিদেশে অর্থ পাঠিয়েছিলেন। পানামা পেপারস মামলার সঙ্গে জড়িত প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অমিতাভ বচ্চন তাঁর যোগাযোগের কথা অস্বীকার করেছিলেন।

২০১৬ সালে ব্রিটেনে পানামার আইনি সংস্থা থেকে ১ দশমিক ১৫ কোটি রুপির আয়কর–সংক্রান্ত নথি ফাঁস হয়। সেই নথিপত্রে ছিল ভারতের রাজনৈতিক নেতা, শিল্পপতি ও প্রভাবশালী ব্যক্তিদের নাম। এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ওই নথিপত্রে অমিতাভ বচ্চনকে চারটি প্রতিষ্ঠানের পরিচালক হিসেবে দেখানো হয়েছে। এর মধ্যে তিনটি প্রতিষ্ঠান বাহামাসে, আর একটি ভার্জিন আইসল্যান্ডে। ১৯৯৩ সালে এই প্রতিষ্ঠানগুলো যাত্রা শুরু করে।

default-image

এদিকে ঐশ্বরিয়াকে শুরুতে একটি প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ঘোষণা করা হয়। পরে দেখা যায় তিনি ওই প্রতিষ্ঠানের শেয়ার হোল্ডার। প্রতিষ্ঠানটির মূল দপ্তর ভার্জিন আইসল্যান্ডে। ঐশ্বরিয়া ছাড়া তাঁর বাবা কে রাই, বৃন্দা রাই, আর ভাই আদিত্য রাই ওই প্রতিষ্ঠানের অন্যতম অংশীদার। প্রতিষ্ঠানটি যাত্রা শুরু করে ২০০৫ সালে। তিন বছর পর সেটি বন্ধ হয়ে যায়।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন