বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

‘মার্ডার’ ছবিতে এক সাহসী চরিত্রে অভিনয় করে রীতিমতো সাড়া ফেলেছিলেন মল্লিকা। এরপর হালে আর সে রকম পানি পাননি তিনি।

default-image

নিজের তিক্ত অভিজ্ঞতার প্রসঙ্গে মল্লিকা বলেছেন, ‘আমাকে নিয়ে অনেক লেখালেখি হতো আর এগুলো ছিল আপত্তিজনক। এমনকি এক চিত্র সমালোচক আমাকে পর্নো তারকা পর্যন্ত বলেছিলেন। পর্নো দুনিয়া নিয়ে আমার মনে কোনো বাজে চিন্তাভাবনা নেই। কিন্তু আমাকে নিয়ে ক্রিটিকরা এসব লিখতেন, ওরা এতটাই নিচে নেমে গিয়েছিলেন।’

default-image

মল্লিকা বলেছেন যে শুরুর দিকে সাহসী দৃশ্যে অভিনয় করার ফলে তাঁর ক্যারিয়ারের অনেক ক্ষতি হয়ে গেছে।

default-image

এই বলিউড নায়িকা বলেছেন, ‘“মার্ডার” ছবিতে সাহসী দৃশ্যে অভিনয়ের পর অনেকে নৈতিকভাবে আমাকে হত্যা করেছিল। সবাই আমাকে নিচু স্তরের মেয়ের নজরে দেখত। আমি অর্থপূর্ণ চরিত্রে কাজ করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু আমি এসবই মিস করেছি। আমাকে শুধু গ্ল্যামারাস চরিত্রের প্রস্তাব দেওয়া হতো আর এর জন্য কাঁড়ি কাঁড়ি টাকার প্রস্তাব থাকত। এসব চরিত্রে কোনো প্রাণ ছিল না। তাই নিজেকে নতুন করে আবিষ্কার করা খুব জরুরি ছিল। শুরুর দিকে যেসব চরিত্রে অভিনয় করেছিলাম, তা আমি সারা জীবন করতে পারি না।’

default-image

২০০৩ সালে ‘খোয়াইশ’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে নায়িকা হিসেবে অভিষেক হয়েছিল মল্লিকার। এরপর ‘মার্ডার’, ‘ওয়েলকাম’, ‘ডাবল ধামাল’, ‘ডার্টি পলিটিকস’, ‘শাদি সে পহেলে’সহ আরও অনেক ছবিতে কাজ করেছেন তিনি।

default-image
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন