বিজ্ঞাপন
default-image
ছবিতে আয়ুষ্মানের মায়ের ভূমিকায় দুর্দান্ত অভিনয় করে তুমুল আলোচনায় আসেন কিছুটা আড়ালে থাকা নীনা গুপ্তা। নীনা ও গজরাজ রাওয়ের জুটি ব্যাপক প্রশংসিত হয়। এমনকি সুরেখা শিকরি অভিনীত নীনা গুপ্তার শাশুড়ি ও আয়ুষ্মানের ‘কানে খাটো’ দাদির চরিত্রকে বলা হয় ২০১৮ সালের সেরা অভিনীত চরিত্রগুলোর একটি

বাধাই হো

পুরোদস্তুর ফ্যামিলি ড্রামা বলতে যা বোঝায়, এই ছবি তা–ই। শুধু আয়ুষ্মানই নন, এ ছবিতে আয়ুষ্মানের মায়ের ভূমিকায় দুর্দান্ত অভিনয় করে তুমুল আলোচনায় আসেন কিছুটা আড়ালে থাকা নীনা গুপ্তা। নীনা ও গজরাজ রাওয়ের জুটি ব্যাপক প্রশংসিত হয়। এমনকি সুরেখা শিকরি অভিনীত নীনা গুপ্তার শাশুড়ি ও আয়ুষ্মানের ‘কানে খাটো’ দাদির চরিত্রকে বলা হয় ২০১৮ সালের সেরা অভিনীত চরিত্রগুলোর একটি। ২৯ কোটি রুপি খরচ করে বানানো ছবিটি তুলে এনেছিল ২২১ কোটি রুপি।

default-image
তিনি এমন এক হিরো, যিনি মেয়েদের গলায় কথা বলেন। আর ফোনে তাঁর কণ্ঠ শুনে প্রেমে পড়ে যান তাঁর বাবাও। নারীকণ্ঠে পুরুষের সঙ্গে কথা বলে মোবাইল কোম্পানির বেশি বেশি বিল ওঠানোই তাঁর কাজ!

ড্রিম গার্ল

এই সিনেমায় আয়ুষ্মান যেমন চরিত্রে অভিনয় করেছেন, বলিউডের বড় পর্দার কোনো হিরোকে সম্ভবত এর আগে এ ধরনের চরিত্রে দেখা যায়নি। তিনি এমন এক হিরো, যিনি মেয়েদের গলায় কথা বলেন। আর ফোনে তাঁর কণ্ঠ শুনে প্রেমে পড়ে যান তাঁর বাবাও। নারীকণ্ঠে পুরুষের সঙ্গে কথা বলে মোবাইল কোম্পানির বেশি বেশি বিল ওঠানোই তাঁর কাজ! আর এ রকম একটি চরিত্র করেই ক্যারিয়ারের সবচেয়ে অর্থ উপার্জনকারী সিনেমাটি উপহার দিয়েছেন আয়ুষ্মান।

শুধু ‘বার্থ ডে বয়’ আয়ুষ্মানের জন্যই নয়, নুসরাত বরুচার ক্যারিয়ারের জন্যও ছবিটি টার্নিং ‘পয়েন্ট’। মাত্র ৩৩ কোটি রুপি খরচ করে বানানো ছবিটি বক্স অফিসে তুলে এনেছিল ২০০ কোটি ৮০ লাখ রুপি।

বড় পর্দার হিরোর মাথায় নেই চুল। এ নিয়ে তাঁর হীনমন্যতার শেষ নেই। সব সময় পরচুলা পরে ঘোরেন। প্রেমিকার সামনে গেলে টেনশনে পড়ে যান। এই বুঝি পরচুলা খুলে বেরিয়ে পড়ে টাকমাথা।
default-image

বালা

বড় পর্দার হিরোর মাথায় নেই চুল। এ নিয়ে তাঁর হীনমন্যতার শেষ নেই। সব সময় পরচুলা পরে ঘোরেন। প্রেমিকার সামনে গেলে টেনশনে পড়ে যান। এই বুঝি পরচুলা খুলে বেরিয়ে পড়ে টাকমাথা। মাত্র ২৫ কোটি খরচ করে বানানো ছবিটি আয় করেছিল ১৭১ কোটি রুপি। হলভর্তি দর্শক ছবিটা দেখে হাততালি দিয়েছেন, আর সমালোচকেরাও চরিত্রটিকে দুই হাত ভরে প্রশংসা করতে ভোলেননি। বলেছেন, এ সিনেমা দেখে টাকমাথার লোকেরাও ভাববেন, যদি আয়ুষ্মান হিরো হন, তবে তিনি কেন নন?

default-image
পুলিশের পোশাকে দর্শক যে আয়ুষ্মানকে এতটা ভালোবাসবেন, তা ভাবেননি আয়ুষ্মান নিজেও।

আর্টিকেল ফিফটিন

অনুভব সিনহা পরিচালিত এই ছবিকে বলা হয় আয়ুষ্মান খুরানার সেরা পারফরম্যান্স। পুলিশের পোশাকে দর্শক যে আয়ুষ্মানকে এতটা ভালোবাসবেন, তা ভাবেননি আয়ুষ্মান নিজেও। ২৯ কোটি খরচ করে বানানো ছবিটি তুলে এনেছিল ৯৩ কোটি রুপি, যদিও ছবিটি মুক্তির পর ব্যাপক আন্দোলিন হয়। এ সিনেমার মধ্য দিয়ে বর্ণপ্রথার সমালোচনা করায় শত শত হলে বন্ধ করা হয় ছবিটি

default-image
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন