বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কাজল বলেছেন, ‘ছবিতে আমি তথাকথিত পোশাকধারী নার্সের চেয়ে অনেক বেশি যত্নশীল আর মানবিক। আমি আর আমার পরিচালক চরিত্রটিকে অন্যভাবে তুলে ধরতে প্রচুর ভাবনাচিন্তা করেছি। ছবিতে আমার লুক, আচরণ, কথা বলার আদবকায়দা, উপস্থিতি, স্টাইল সব যেন ব্যতিক্রমী হয়, তা নিয়ে আমরা অনেক আলাপ–আলোচনা করেছি। তবে আমরা এটাও মাথায় রেখেছি যে চরিত্রটি যেন দর্শকের কাছে বাস্তবিক লাগে। ছবির গল্প কলকাতার পটভূমিতে নির্মাণ করা হয়েছে। আর তাই আমার চরিত্রের মধ্যে কিছু বাঙালি সংস্কৃতির ঝলক দেখা যাবে।’

default-image

‘উমা’ ছবির গল্প সম্পর্কে কাজল বলেছেন, ‘এক রহস্যময়ী মেয়েকে ঘিরে এই ছবির গল্প। মেয়েটি কোথা থেকে এসেছে আর কোথায় চলে গিয়েছে, কেউ জানে না। একদিন এক পরিবারে আগন্তুকের মতো এসে তাদের জীবন বদলে দেয় মেয়েটি। এই ছবির গল্প মন ভালো করে দেবে। আর সম্পূর্ণ পারিবারিক ছবি।’ কাজলকে এই প্রথম কোনো হিন্দি ছবির প্রধান চরিত্রে দেখা যাবে।

আর এই ছবির গল্প কাজলকে ঘিরেই। তাই দক্ষিণি এই নায়িকা অত্যন্ত উচ্ছ্বাসের সঙ্গে বলেন, ‘আমি অত্যন্ত খুশি যে এই প্রথম অন্য ভাষার ছবিতে এক ব্যতিক্রমী চরিত্রে অভিনয় করছি। নারীকেন্দ্রিক ছবি মানেই ধূসর বা গুরুগম্ভীর ধরনের কিছু হয়। কিন্তু আমার এই ছবি একরাশ খুশি নিয়ে আসবে।’

default-image

চলচ্চিত্রপাড়ায় বেশ কিছুদিন ধরে গুঞ্জন মা হতে চলেছেন কাজল। এ ব্যাপারে এত দিন টু শব্দ করেননি তিনি।

সাক্ষাৎকারে কাজল এ প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘আমি এখন এ ব্যাপারে কিছু বলতে চাই না। সঠিক সময় এলে এ বিষয়ে কথা বলব। মাতৃত্ব নিয়ে আমি কখনো উচ্ছ্বসিত, আবার কখনো নার্ভাস বোধ করি। আমি আমার বোনকে দেখেছি মা হওয়ার পর ওর জীবন কতটা বদলে গেছে।’ তিনি আরও বলেছেন, ‘আমি মনে করি মাতৃত্ব এক অসাধারণ অনুভূতি। বোনের দুই ছেলের সান্নিধ্যে এসে মাতৃত্বের অভিজ্ঞতা কিছুটা হয়েছে।

default-image

আমার মনে হয় যে মা হওয়ার পর আমার আবেগ আরও বেড়ে যাবে।’ গত বছরের ৩০ অক্টোবর শিল্পপতি গৌতম কিচলুকে বিয়ে করেছিলেন কাজল।
‘উমা’ ছবির অন্যান্য চরিত্রে দেখা যাবে টিনু আনন্দ, হর্ষ ছায়া, মেঘনা মালিক, গৌরভ শর্মা, আয়োশি তালুকদার, কিয়ান শর্মাকে।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন