বলিউডে ১৫ বছর পূর্ণ করলেন কঙ্গনা রনৌত। আর তিনি টুইট করে বলেছেন, পেছন ফিরে তাকালে তাঁর নিজের এই সফর বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের মতো লাগে। যিনি বলিউডে এসেছেন, অভিনয় করেছেন আর জয় করেছেন। কঙ্গনা বলেছেন, তিনি আর শাহরুখ খান বলিউডের সবচেয়ে বড় সফলতার কাহিনি।

default-image

‘বিশ্বসেরা’ নিন্দুকদের একজন তিনি, বলিউডপাড়ার লোকজন তা জানেন। সদ্য বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঐতিহাসিক জয় নিয়েও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বলিউড নায়িকা কঙ্গনা রনৌত। তাঁর মুখে প্রশংসা তো দূরের কথা, নিন্দা শুনে অভ্যস্ত টুইটার ব্যবহারকারীরা। সেসব নিন্দা টুইটার থেকে ছড়িয়ে পড়ে সবখানে। এবার সবাইকে চমকে দিলেন কঙ্গনা। একঝুড়ি প্রশংসা করেছেন বলিউডের আরেক নায়িকা বিদ্যা বালানের।

সম্প্রতি এক শীর্ষস্থানীয় পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কঙ্গনা তাঁর ক্যারিয়ার ঘিরে অজানা তথ্য ফাঁস করেছেন। এই বলিউড নায়িকা জানিয়েছেন যে ‘দ্য ডার্টি পিকচার’ ছবিটি প্রথমে তাঁর কাছে এসেছিল। বিদ্যা বালান অভিনীত চরিত্রটি করার কথা ছিল তাঁর। তবে তিনি ‘না’ করে দিয়েছিলেন। আর কঙ্গনা অকপটে স্বীকার করেছেন যে সিল্ক স্মিতা চরিত্রটি বিদ্যা যেভাবে করেছেন, সেভাবে তিনি কোনো দিন পারতেন না।
এই সাক্ষাৎকারে কঙ্গনাকে প্রশ্ন করা হয়, সিনেমা নিয়ে তাঁর কোনো আক্ষেপ আছে কি না। জবাবে কঙ্গনা বলেন, ‘সে রকম কিছু নেই। তবে “দ্য ডার্টি পিকচার” দারুণ এক ছবি হয়েছিল। আর আমি কখনোই মনে করি না যে বিদ্যার চেয়ে আমি ভালো করতে পারতাম। ছবিতে বিদ্যাকে দেখতে দারুণ সুন্দর লেগেছিল। আমি করলে ছবিটা এত বড় হিট হতো কি না, জানি না।’

default-image
বিজ্ঞাপন

কঙ্গনা আরও বলেন, ‘বিকল্প ধারার ছবি থেকে আমি মূলধারার বলিউড ছবির তারকা হয়েছি। আমি কখনোই রাজকুমার হিরানি, ধর্ম প্রোডাকশন (করণ জোহরের), যশরাজ ফিল্মস, সঞ্জয়লীলা বানসালি প্রোডাকশন বা কোনো খানের সঙ্গে ছবি করিনি। তবু আমি বলিউডের শীর্ষস্থানীয় অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছি। “দ্য ডার্টি পিকচার” ছবিতে আমি নিজের সম্ভাবনা দেখিনি। তবে বছরের সেরা হিট করার পরেও এ নিয়ে আমার কোনো আফসোস নেই।’

default-image

প্রতিনিয়ত নানান মন্তব্য করে আলোচনায় থাকতে ভালোবাসেন কঙ্গনা। বিধানসভা নির্বাচন আর ‘ডার্টি পিকচার’ নিয়ে এই মন্তব্যের সঙ্গে সঙ্গে আরও দুটি কারণে চর্চিত হচ্ছেন কঙ্গনা। জানিয়েছেন যে নিজের গায়ের রং নাকি তাঁর পছন্দ নয়। এ রকম ফর্সা গায়ের রং দিয়ে তিনি ফেয়ারনেস ক্রিমের বিজ্ঞাপন করে কোটি কোটি টাকা কামিয়ে নিতে পারতেন। কিন্তু তাতে তাঁর বোন রাঙ্গোলিকে অসম্মান করা হতো। রাঙ্গোলির গায়ের রং কঙ্গনার চেয়ে একটু শ্যামলা। আর সেটিই বেশি পছন্দ কঙ্গনার। তিনি আরও বলেছেন, তিনি যে ধরনের ছবিতে অভিনয় করেন, সেই চরিত্রগুলোর জন্য তাঁর গায়ের রং আরেকটু চাপা হলে সুবিধা হতো। আর বলিউডের মূলধারার নায়িকা নন তিনি, এ কথাও যোগ করেন কঙ্গনা।

default-image

কঙ্গনা হামেশাই চলচ্চিত্রের আঙিনা ছাড়িয়ে রাজনৈতিক আঙিনায় ঢুকে পড়েন। রাজনৈতিক বিষয়ে সদ্য তাঁর এক পোস্টকে ঘিরে রীতিমতো সমালোচনার ঝড় বইছে। রোববার বিধানসভা নির্বাচনে মমতার অসামান্য জয়ের পেছনে বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গারাই সবচেয়ে বড় শক্তি বলে কটাক্ষ করেছেন কঙ্গনা। তাঁর এই টুইটকে ঘিরে কড়া সমালোচনা হচ্ছে। লকডাউনে সবাইকে গাছ লাগানোর পরামর্শও দিয়েছেন আজই।

default-image

কঙ্গনা অভিনীত ‘থালাইভা’ ছবিটি মুক্তির অপেক্ষায় আছে। এই ছবিতে তাঁকে তামিলনাড়ুর প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার ভূমিকায় দেখা যাবে। এ ছাড়া তাঁর ‘ধকড়’ আর ‘তেজস’ ছবির কাজ চলছে।

বিজ্ঞাপন
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন