খবর অনুযায়ী, যতীন ভ্যাস মুম্বাইয়ের এক ব্যবসায়ী। তিন বছর আগে আন্ধেরির এক জিমে রিমির সঙ্গে এই ব্যবসায়ীর পরিচয় হয়। রিমির বক্তব্য, এক প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী হিসেবে যতীন নিজের পরিচয় দিয়েছিলেন।

default-image

আর সাবেক এই অভিনেত্রীকে যতীন তাঁর সংস্থায় বিনিয়োগের কথা বলেন। তার বিনিময়ে রিমি সংস্থার লাভের অংশ থেকে ৪০ শতাংশ ফেরত পাবেন। রিমি যতীনের কথামতো তাঁর সংস্থায় বিনিয়োগ করেছিলেন। নির্দিষ্ট দিনে তিনি যখন লাভের অংশের টাকা নেওয়ার জন্য যতীনকে ফোন করেন, এই ব্যবসায়ী তাঁর ফোন রিসিভ করেননি। রিমি বুঝতে পারেন যে যতীন কোনো ব্যবসায়ী নন, ব্যবসায়ীর আড়ালে সে এক প্রতারক। তারপর তিনি যতীনের বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নেন।

সংবাদ সংস্থা অনুযায়ী, আইপিসির ৪২০ আর ৪০৯ ধারা অনুযায়ী যতীনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে। খার পুলিশ এখন এই প্রতারককে ধরার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে।

default-image

রিমি সেনকে ‘হাঙ্গামা’, ‘গোলমাল’, ‘ফির হেরাফেরি’, ‘ধুম’, ‘গরম মাশালা’সহ অসংখ্য হিট ছবিতে দেখা গেছে। একসময় হঠাৎ গ্ল্যামারের জগৎ থেকে তিনি নিজেকে আড়াল করে নেন।

default-image

এ প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে রিমি বলেছিলেন, ‘আমি অভিনয় নিয়ে খুব একটা সিরিয়াস ছিলাম না। আর আমি আমার ক্যারিয়ার এবং “পিআর”-কে ঠিকমতো পরিচালনা করতে পারতাম না। একসময় আমি মেশিনের মতো হয়ে গিয়েছিলাম। আর সত্যি বলতে পর্দায় আমাদের অর্থাৎ নায়িকাদের তখন “শোপিস” হিসেবে তুলে ধরা হতো। এই সময়ে অভিনয়জগতে এলে অনেক ভালো ভালো সুযোগ হয়তো পেতাম।’

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন