বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ঘর ভাঙার পরে এই তেলেগু অভিনেত্রীকে নাগার পরিবার থেকে খরপোশের প্রস্তাব দেওয়া হয়। এ প্রস্তাবে বেশ অপমানিত হয়েছেন তিনি। ভারতীয় স্থানীয় এক বিনোদন পোর্টালের খবর অনুযায়ী, সামান্থাকে খোরপোশ বাবদ ২০০ কোটি রুপি দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়। প্রস্তাব গ্রহণ করা তো দূরের কথা, উল্টো অপমানিত হয়েছেন তিনি। এই অভিনেত্রীর মতে, তিনি একজন স্বাধীন নারী। নিজের মতো করেই বাঁচতে চান। তাঁর এই খোরপোশের দরকার নেই।

default-image

চতুর্থ বিবাহবার্ষিকীর ঠিক চার দিন আগেই বিচ্ছেদের ঘোষণা আসে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। বিচ্ছেদের যখন গুঞ্জন চলে, তখনই খরপোশ নিয়ে খবর হয়েছিল। বলা হয়েছিল, বিয়ের খরচের পাঁচ গুণ বেশি খোরপোশ পাবেন সামান্থা। ২০১৭ সালে হায়দরাবাদে তাঁদের বাগদান হয়। একই মাসের ৬ অক্টোবর হিন্দুমতে আর পরের দিন খ্রিষ্টান রীতি অনুযায়ী বিয়ে হয় তাঁদের। বিয়েতে খরচ হয়েছিল ১০ কোটি রুপির বেশি। সে হিসাবে সামান্থার খোরপোশ দাঁড়ায় ৫০ কোটি রুপি। এবার জানা গেল, ৫০ নয়; ২০০ কোটি রুপি খোরপোশ দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এই ‘ফ্যামিলি ম্যান’খ্যাত অভিনেত্রী এক টাকাও নেবেন না নাগার কাছ থেকে।

default-image

২০১০ সালে তেলেগু ছবি ‘ইয়ে মায়া চেসাবে’তে কাজ করার সময় সামান্থা রুথ প্রভু ও নাগা চৈতন্যর মধ্যে বন্ধুত্ব হয়। নাগার বাবা জনপ্রিয় তেলেগু তারকা নাগার্জুন। মা–বাবা দুই দিক থেকেই এই পরিবার চলচ্চিত্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। কিন্তু মনে করা হচ্ছে, বিয়ের পরে সামান্থার ক্যারিয়ার জটিলতা বিচ্ছেদের অন্যতম কারণ।

default-image

তাঁর ফিল্মি ক্যারিয়ার এখন তরতরিয়ে ছুটছে। বিশেষ করে আলোচিত সিরিজ ‘দ্য ফ্যামিলি ম্যান টু’তে আলাদাভাবে নজর কেড়েছেন তিনি। বিয়ের পর খোলামেলা ফটোশুট করিয়েছেন তেলেগু এই অভিনেত্রী। এসবেই নাকি ঘোর আপত্তি আক্কিনেনি পরিবারের। তাঁরা চান না তাঁদের বাড়ির বউ এ ধরনের ফটোশুট করুক বা পর্দায় সাহসী হয়ে উঠুক।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন