default-image

নিজের যন্ত্রণাভরা ব্রেকআপ সম্পর্কে সানিয়া বলেন, ‘ব্রেকআপ সবার জন্যই অত্যন্ত বেদনাদায়ক। আর এটাই আমাকে নিজের দিকে ঠেলে দিয়েছে। চার বছরের সম্পর্ক ভাঙা সত্যি কষ্টের। এ সম্পর্কের শুরু হয়, তখন আমি দিল্লিতে ছিলাম। আমরা দুজন মিলে এ সম্পর্কের ইতি টানি আর তার পরই লকডাউন শুরু হয়। আর আমি তখন মুম্বাইয়ে পুরোপুরি একা। তবে আমি এ পরিস্থিতি থেকে বের হয়ে আসতে নিজেকে সময় দিয়েছি। বোঝার চেষ্টা করেছি যে কেন এ সম্পর্ক টিকল না। আর আমি এটাও বুঝেছি যে আমার নিজেকে কাটাছেঁড়া করা জরুরি। ২০২০ সাল আমার জন্য ভালো ছিল বলা যায়। কারণ, এ বছর আমি আমার ক্ষত শুকানোর জন্য সময় দিতে পেরেছি।’

লং ডিসট্যান্স সম্পর্ক নিয়ে দঙ্গল কন্যা বলেন, ‘লং ডিসট্যান্স সম্পর্কের আসল চাবিকাঠি হলো যোগাযোগ। আমি আর আমার সাবেক প্রেমিক যখনই দেখা করতাম, আমরা ভালোভাবে সময় কাটানোর চেষ্টা করতাম। কিন্তু এখন আমি উপলব্ধি করছি যে একইভাবে আমাদের উচিত ছিল নানা সমস্যাকে গুরুত্ব দেওয়া। আর তা নিয়ে আলোচনা করা।’

default-image

সানিয়াকে শেষ পর্দায় দেখা গেছে মীনাক্ষী সুন্দরেশ্বর ছবিতে। নেটফ্লিক্সে মুক্তি পাওয়া এ ছবিতে তাঁর বিপরীতে ছিলেন অভিমন্যু দশানি। এ ছবিতে সানিয়ার অভিনয় দারুণভাবে প্রশংসিত হয়েছে।

default-image
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন