বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আদালত কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন যে কোনো প্রকারের বাইরের খাবার তাঁদের কাউকে দেওয়া যাবে না। জেলের সব নিয়মকানুন তাঁদের মেনে চলতে হবে এবং তাঁদের সকাল ছয়টার মধ্যে ঘুম থেকে উঠতে হবে।

default-image

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম অনুযায়ী, সকাল সাতটায় তাঁদের সকালের নাশতা দেওয়া হবে। নাশতায় থাকবে শুধু সুজির হালুয়া, চিড়া ও ভাত। বেলা ১১টায় দেওয়া হবে দুপুরের খাবার। সেখানে থাকবে রুটি, সবজি, ডাল ও ভাত। রাতের খাবারেও থাকবে একই জিনিস। সন্ধ্যা ছয়টায় দেওয়া হবে রাতের খাবার। কেউ চাইলে আটটায়ও রাতের খাবার খেতে পারেন। অবশ্যই সবার সঙ্গে প্লেট থাকতে হবে। সকাল ছয়টা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত জেল কর্তৃপক্ষ সেলে ঢুকতে পারবে। এরপর আর কেউ জেলে ঢুকতে পারবে না।

default-image

২ অক্টোবর রাতে মুম্বাই থেকে গোয়াগামী এক বিলাসবহুল প্রমোদতরিতে আয়োজিত মাদক পার্টিতে অভিযান চালায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি)। এ পার্টি থেকে আরিয়ানসহ অনেককে আটক করে তারা। প্রায় ১৫ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর আরিয়ান খান, অভিনেতা আরবাজ মার্চেন্ট, মুনমুন ধামেচাসহ আরও ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে এনসিবি। গত বৃহস্পতিবার শুনানি শেষে আদালত ১৪ দিনের জন্য জেলে পাঠিয়েছেন বলিউডের এই তারকা সন্তানকে। শুক্রবার জামিন আবেদন করলেও তা নাকচ করে দেন আদালত।

default-image

এনসিবির হেফাজতে থাকার সময় ন্যাশনাল হিন্দু রেস্তোরাঁ থেকে সাধারণ খাবার আসত আরিয়ানের জন্য। তাঁর সঙ্গে গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের সবার জন্য একই খাবার দেওয়া হয়েছিল।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন