default-image

হিন্দি একটা গান বাজছিল। আনুশকা শর্মা অভিনীত ‘ফিলৌড়ি’ ছবির ‘দিন সগনা দা চাদেয়া আও সখিওন নিড়হাজার সাজিয়ে হৈ।’ উঠানভরা বরের বাড়ির লোকজন আর দিয়ার পরিবারের লোকেরা। বর-কনে এগিয়ে যাচ্ছেন মঞ্চের দিকে। কনে পরেছেন সিল্কের টুকটুকে লাল শাড়ি, খোঁপায় ফুল। গতকাল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে ভিডিওটি। কেবল ভিডিও না, বেশ কিছু ছবিও দেখা গেছে এই বিয়ের। দিয়া-বৈভবের চার হাত এক হয়েছে।

default-image

গত কয়েক দিন বলিউডে ছড়িয়ে পড়া আনন্দের খবর হচ্ছে এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী দিয়া মির্জার বিয়ে। ‘রাহেনা হ্যায় তেরে দিলমে’ নায়িকা, ২০০০ সালের মিস ইন্ডিয়া ও সাবেক মিস এশিয়া প্যাসিফিক। আগের সবকিছু ধুয়েমুছে নতুন মানুষের সঙ্গে সংসার করতে যাচ্ছেন তিনি। মানুষটির নাম বৈভব রেখি। পেশায় একজন ব্যবসায়ী। বৈভবের সঙ্গে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন দিয়া মির্জা। মেহেদিতে হাত রাঙিয়ে, বেনারসি, গয়না, টিকলি আর লাল ওড়নায় মোহময়ী দিয়া ধরা দিলেন এক নতুন রূপে।

বিজ্ঞাপন

২০১৪ সালে ব্যবসায়িক সহযোগী সাহিল সংঘকে বিয়ে করেছিলেন দিয়া মির্জা। বিয়ের পাঁচ বছরের মাথায় ২০১৯ সালের আগস্ট মাসে বিচ্ছেদের ঘোষণা দেন দিয়া ও সাহিল। তারপর একাই ছিলেন সাবেক মিস এশিয়া প্যাসিফিক। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের একাকী জীবনের বিভিন্ন মুহূর্তের ছবি দিতেন দিয়া। মহামারির ঘরবন্দী দিনে পরিবেশবাদী দিয়া মির্জার দিন কেটেছিল বারান্দায় আর বাড়ির সামনে বাগানে গাছের পরিচর্যা করে।

default-image

এসব ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করেছিলেন তিনি। তবে এর ফাঁকে যে তিনি আর বৈভব প্রেমে মশগুল, তা টেরও পেতে দেননি কাউকে। পরে অবশ্য বৈভবের সঙ্গে তাঁকে দেখাও গিয়েছিল। মূলত, সেখান থেকেই প্রেমের গুঞ্জন। সেই গুঞ্জনকে আর বাড়তে দেননি দিয়া। এক সপ্তাহের নোটিশে বিয়েটাই সেরে ফেললেন।

২০২০ সালে করোনার তাণ্ডব না ঘটলে হয়তো এত দিনে একটা সংসার গুছিয়ে ফেলতেন দিয়া ও বৈভব। নতুন স্বাভাবিকে অভ্যস্ত হচ্ছেন সবাই।

দেরি না করে নতুন স্বাভাবিক সময়কে সাক্ষী করে বসন্তের শুরুতেই দিয়া নতুন জীবন শুরু করলেন। ভারতীয় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, দিয়ার বিয়ে অনুষ্ঠান ছিল ছিমছাম। উপস্থিত ছিলেন হাতে গোনা আত্মীয়-পরিজন, বন্ধুবান্ধব। বলিউডের বড় কোনো তারকা উপস্থিত ছিলেন না। তবে দিয়ার খুব কাছের বন্ধু অভিনেত্রী অদিতি রাও হায়দরি সকাল থেকেই দিয়ার বিয়েতে ছিলেন, ছিলেন জ্যাকি ভাগনানিরাও।

default-image

বলিউডে পা রেখেই দর্শকদের নজর কেড়েছিলেন দিয়া। যদিও বলিউডে বলাবলি হয়, ‘যথেষ্ট সুন্দরী’, ‘মেধাবী’ আর ‘পরিশ্রমী’ হওয়া সত্ত্বেও ঠিক জ্বলে উঠতে পারেননি। শুরুতে সাড়া ফেললেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অনেকটাই ফ্যাকাশে হয়েছে তাঁর জনপ্রিয়তা। শেষবার তাঁকে অনুভব সিনহার ‘থাপ্পড়’ ছবিতে দেখা যায়। সম্প্রতি ছবির পাশাপাশি ওয়েব সিরিজেও কাজ করেছেন তিনি। এখন করছেন তেলেগু ছবি ‘ওয়াইল্ড ডগ’-এ। তবে এখনকার কাজ হবে নতুন সংসারটাকে গুছিয়ে নেওয়া।

বিজ্ঞাপন
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন