default-image

হঠাৎই আয়কর বিভাগের হানা তাপসী পান্নুর বাড়িতে। টানা তিন দিন ধরে চলেছে এই তল্লাশি। তিনটি বিষয়ে চলেছে চুলচেরা অনুসন্ধান। তবে সেসব শেষে কিছুই পাননি আয়কর কর্মকর্তারা।

প্রথম অভিযোগ ছিল ফ্রান্সের প্যারিসে নাকি তাপসী পান্নুর একটি বিলাসবহুল বাংলো আছে। সেই বাংলোর চাবি নাকি আছে আয়কর বিভাগের কাছে। তিন দিনের অনুসন্ধান শেষে সেই বাড়ির বিষয়ে তেমন কিছুই জানা যায়নি। এবার তাপসী জানতে চাচ্ছেন, ‘নিশ্চিতভাবে’ আয়কর বিভাগ যে বাড়ির ব্যাপারে তথ্য নিতে এসেছে, তাঁর সেই বাড়ি কোথায় গেল? সামনেই ‘সামার ডে’। আর তিনি গ্রীষ্মের মিষ্টি রোদে প্যারিসে নিজের সেই বাড়িতে কাটাতে চান। দ্বিতীয় অভিযোগ ছিল একটি পাঁচ কোটি রুপির চেকের বিষয়ে।

default-image

তৃতীয় অভিযোগে বলা হয়েছে, এর আগেও একই অভিযোগে তাপসীর বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়েছে। সেটা ২০১৩ সালের ঘটনা। এমন কিছু তাপসী কিছুতেই মনে করতে পারছেন না। উল্টো তাপসী মুখের ওপর বলে দিয়েছেন, এর আগে যদি আয়কর বিভাগ কোনো তদন্ত চালিয়ে থাকে, তাহলে সেই তথ্য তাদের কাছেই থাকার কথা। সেই কাগজপত্র না দেখে কেন তাঁকে জেরা করছে?

বিজ্ঞাপন

সেই অর্থ তাপসী কোনো দিনই নিতে চাননি। এখন ৩৩ বছর বয়সী এই ‘পিঙ্ক’ তারকা নাকি ভালোই বুঝতে পারছেন যে কেন তাঁকে জোর করে একটা কাজের জন্য অগ্রিম ওই টাকা দেওয়া হলো।

default-image

এত দিন সবকিছু নিয়ে চুপ ছিলেন তাপসী। কিছুই বলেননি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। এবার টুইটে পুরো বিষয়টি নিয়ে তিনটি টুইট করেছেন। সেখানে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তাপসী। আর নীরবতা ভেঙে কড়া জবাবের শেষ বাক্যে লিখেছেন, ‘এতটাও সস্তা হয়ে যাইনি।’ তাঁকে নিয়ে যা খুশি তা-ই বলা হবে, যখন-তখন আয়কর বিভাগকে পাঠিয়ে অকারণে ‘হেনস্তা’ করা হবে আর তিনি চুপ করে থাকবেন, এমনটা ভাবার কোনো কারণ নেই। অনেকেই বলছেন, সরকারের বিভিন্ন কর্মকাণ্ড আর রায়ের বিরোধিতা কারণেই নাকি আয়কর বিভাগের এই তলব।

default-image

গত বুধবার সকালে তাপসী পান্নুর বাড়িতে ভারতীয় আয়কর বিভাগের হানা নিয়ে বেশ চাঞ্চল্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

default-image

এ নিয়ে বেশ কিছু প্রশ্ন তুলেছেন ভক্তরা। কারণ, টুইটার হোক বা প্রকাশ্য রাস্তায় বারবার মোদি সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলতে দেখা গেছে তাপসীকে। কিছুদিন আগে ধর্ষণসংক্রান্ত একটি মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরোধিতা করেছেন তাপসী পান্নু। সাম্প্রতিক সময়ে কৃষক আন্দোলন মোদি সরকারে বিরুদ্ধে মন্তব্য করেছেন তাপসী পান্নু। এ কারণে জব্দ করতেই কি আয়কর বিভাগের হামলা? প্রশ্ন তুলেছিল তাপসীর ভক্তরা।

default-image

এ প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন ভারত সরকারের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর। বিজেপির সমালোচনার জন্যই এই অভিযান, সংবাদ সম্মেলনে এ প্রশ্ন উড়িয়ে দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘এটা বাড়াবাড়ি হয়ে যাচ্ছে! কোনো কেন্দ্রীয় সংস্থা নিজেদের সোর্স থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালায়, এরপর সেটা আদালতে যায়।’ কেন্দ্র সরকারের নীতির বিরোধিতার সঙ্গে কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার কোনো যোগ নেই—তেমনটাই বললেন প্রকাশ জাভড়েকর। এই মুহূর্তে তাপসীর হাতে আছে ছয়টি সিনেমা। এর মধ্যে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ‘হাসিন দিলরুবা’ ও ‘রশ্মি রকেট’।

বিজ্ঞাপন
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন