বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

রোহিঙ্গা সংকটের পটভূমিতে ভালোবাসার গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে ‘রোহিঙ্গা’। ভারতের গুয়াহাটির পাহাড় ও জঙ্গলে ছবিটির শুটিং হয়েছে। ছবিতে হোসনে আরা চরিত্রে অভিনয় করেছেন মিথিলা। এটি তাঁর প্রথম ছবি। মুক্তির পর বাসায় বসে তাঁর পরিবার ও বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে ছবিটি দেখেন। নিজেকে সিনেমার নায়িকা হিসেবে পর্দায় প্রথম দেখে কেমন লাগল? দারুণ খুশি মিথিলা বলেন, ‘এভাবে নিজেকে দেখার অনেক প্রতীক্ষা ছিল। আয়োজন করে বাসায় বসে সবাই মিলে ছবিটি দেখেছি। খুব ভালো লেগেছে। আমার কাজ দেখে পরিবারের লোকজন ও বন্ধুবান্ধব সবাই খুশি। কাজটি দেখার পর আমার মনে হয়েছে আরেকটু সময় পেলে, প্রস্তুতি নিতে পারলে আরও ভালো করা যেত। তবে প্রথম কাজ হিসেবে হতাশ নই।’

default-image

প্রথমে ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির কথা ছিল, শেষ পর্যন্ত ওটিটিতে মুক্তি পেয়েছে। এ ব্যাপারে মিথিলা বলেন, ‘সব অভিনেতাই চান তাঁর কাজ বড় প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাক। প্রথম কাজ হিসেবে এই আগ্রহটা আমার আরও বেশি ছিল। কিন্তু শুটিং শেষ করার পরপরই করোনা শুরু হয়ে গেল। পোস্ট প্রোডাকশন থেকে শুরু করে সেন্সর পর্যন্ত নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ করতে পারিনি আমরা। ফলে মুক্তির সময়কালও দীর্ঘ হয়ে যাচ্ছিল। এ কারণে আর সময় না নিয়ে ওটিটিতে মুক্তি দিয়েছি।’

default-image

ওটিটিতে ছবিটি মুক্তির পরপরই শোনা যাচ্ছিল, ছবির পরিচালক হায়দার খান ও নায়ক স্যাঙ্গে বাংলাদেশে আসবেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে এই অভিনেত্রী ও মডেল বলেন, ‘সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা হয়েছে। তাঁরা এখন আর আসবেন না। কারণ, এখানে দুই দিনের জন্য এসে নায়ককে ভুটানে ফিরে ১৫ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এর আগে একবার ভারত থেকে এই ছবির শুটিং শেষ করে ভুটানে ফিরে তাঁকে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয়েছে। এসব ঝামেলা এড়াতে এখন আর তাঁরা বাংলাদেশে আসছেন না। তা ছাড়া ওটিটিতে মুক্তির কারণে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে ছবিটির মুক্তির সিদ্ধান্তও বাতিল করা হয়েছে।’

মিথিলা জানালেন, আগামী তিন-চার দিনের মধ্যে দুবাই যাচ্ছেন তিনি। সেখানে স্টেজ ফ্যাশন শোতে অংশ নেবেন। এক সপ্তাহ পর দেশে ফিরবেন।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন