default-image

তিনি বলেছেন, ‘আমার বাবা আগে বিজ্ঞাপন ছবি পরিচালনা করতেন। প্রায় ১৫ বছর হলো তিনি এই কাজ থেকে অবসর নিয়েছেন। বাবার সঙ্গে তখন সালমান ভাই ছাড়া আরও বেশ কিছু তারকা কাজ করেছিলেন। আর তখন সালমান ভাই মডেলিং করতেন। কিন্তু তারপর আর তাঁর সঙ্গে কোনো যোগাযোগ ছিল না। আমার মিউজিক ভিডিও দেখে সালমান ভাই নিজে আমাকে ফোন করেছিলেন। আর তিনি বলেন যে আমি খুব ভালো কাজ করেছি। আমার সত্যি তখন দারুণ লেগেছিল। তবে আমি কিন্তু ভিডিওটা তাঁকে পাঠাইনি।’

default-image

নীরজ পান্ডে প্রযোজিত ‘অপারেশন রোমিও’তে বেদিকার অভিনয় প্রশংসিত হচ্ছে। তবে বলিউডে পা রাখার জন্য তাঁকে অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘আমার জন্য প্রথম সুযোগ মোটেও সহজ ছিল না। অডিশনের জন্য না জানি কত চক্কর খেতে হয়েছে। আমি ক্রমাগত অডিশন দিয়েছি। আর বারবার প্রত্যাখ্যানের শিকার হয়েছি। আসলে বারবার একই ঘটনা ঘটলে মানুষের অন্তর ভেঙে চুরমার হয়ে যায়। আমিও ভেতর থেকে ভেঙে পড়েছিলাম। টানা তিন বছর আমার এই সংগ্রাম চলেছে।’

default-image

প্রত্যাখ্যানের বিষয়ে বেদিকা বলেন, ‘অদ্ভুত সব কারণ দেখিয়ে আমাকে ছবি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। একবার তো বলা হয়েছিল যে আমি এই চরিত্রের জন্য অত্যন্ত বেশি সুন্দর। এরপর আর কীই–বা করতে পারি!’
বলিউডের নবাগত সদস্য বেদিকা আরও বলেছেন, ‘কেউ কেউ আমাকে কসমেটিক সার্জারি করে চেহারা বদলানোর পরামর্শ দিয়েছেন। তবে এই সময় সবচেয়ে জরুরি ছিল আত্মবিশ্বাসের। আর নিজেকে আপন করে নেওয়া খুব জরুরি। আমি সেটাই করে গেছি। আর তাই প্রথম সুযোগ পেয়েছি।’

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন