default-image

‘নারীদের কাজ বাড়িতে। ঘর সামাল দেওয়া আর সন্তানের দেখভাল করা। তাঁরা কাজ করতে বাইরে যান বলেই কর্মক্ষেত্রে তাঁদের যৌন হয়রানির শিকার হতে হয়। নারীরা কাজে যায় বলেই মি-টুর ঘটনা ঘটছে।’ এভাবেই কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানির কারণ উন্মোচন করেছেন ভারতীয় টিভি ও চলচ্চিত্র অভিনেতা মুকেশ খান্না। এ নিয়ে টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করে বেকায়দায় পড়েছেন এই অভিনেতা। অনলাইনে ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওর কমেন্টে বকা খাচ্ছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
default-image

ওই ভিডিওতে মুকেশ বলেছেন, ‘নারী ও পুরুষকে সৃষ্টিই করা হয়েছে ব্যতিক্রম করে। নারীর দায়িত্ব হচ্ছে ঘরের দেখভাল করা। বলতে খারাপ লাগছে, তবু বলতে হচ্ছে যে মি-টু সমস্যার সূত্রপাত হয়েছে নারীরা কর্মক্ষেত্রে যাওয়ার পর। আজকাল নারীরা পুরুষের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে চান। লোকে নারী স্বাধীনতার কথা বলে, কিন্তু এখানেই সমস্যার শুরু। এতে ভুগতে হচ্ছে কর্মক্ষেত্রে যাওয়া নারীর সন্তানদের। তারা মায়ের মমতা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, বেড়ে উঠছে কাজের লোকের কাছে। এসব ঘটে নারী যখন নিজেকে পুরুষের সমকক্ষ মনে করে। কিন্তু পুরুষ পুরুষই, আর নারী তো নারীই।’ মুকেশের এই বক্তব্যের ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়।

default-image

নিজের ভিডিও ভাইরাল ও নিন্দিত হওয়ার পর আবারও একটি ভিডিও পোস্ট করেন তিনি। সেখানে তিনি বলেছেন, ‘আমার বক্তব্য যেভাবে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে, এটা দেখে আমি ভীষণ অবাক হয়েছি। আমার মতো করে কেউ নারীদের সম্মান করে বলে আমি মনে করি না। সে কারণেই “লক্ষ্মী বোম্ব” ছবির শিরোনামের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিলাম। আমি তো নারীদের সুরক্ষার বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন। আমার যে ভিডিও ক্লিপটি ভাইরাল হয়েছে, সেখানে আমি বলতে চাইনি যে নারীদের কাজ করা উচিত নয়। আমি কেবল মি-টু শুরু হওয়ার কারণটিই বলেছিলাম। আমাদের নারীরা দায়িত্বপূর্ণ নানা ক্ষেত্রে ভালো করছেন। তাহলে আমি কীভাবে তাদের বিরুদ্ধে কথা বলব? আমি কেবল বলেছিলাম যে নারীরা ঘরের বাইরে যান বলেই মি-টু হয়। আমি কেবল নারী ও পুরুষের দায়িত্ব নিয়েই কথা বলছিলাম। আমার পুরো ক্যারিয়ারের দিকে তাকালে দেখতে পাবেন, আমি সব সময় নারীদের সম্মান করে আসছি। তারপরও যদি কারও মনে আঘাত করে থাকি, ক্ষমা করে দেবেন।’

ভারতের প্রথম সুপারহিরো ‘শক্তিমান’–এর অভিনেতা মুকেশ খান্না টিভি ধারাবাহিক ও সিনেমায় কাজ করেছেন। অক্ষয়ের নতুন ছবি ‘লক্ষ্মী বোম্ব’ ছবিটির বোম্ব শব্দটি নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিলেন তিনি। পরে নানা কারণে ছবির নতুন নামকরণ করা হয়, বাদ দেওয়া হয় বোম্ব শব্দটি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0