বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

একসময় হাউমাউ করে কাঁদতে থাকেন। বেশ কয়েকটি ভারতীয় গণমাধ্যম নিজস্ব উৎসে এ খবরটি প্রকাশ করেছে।

default-image

আজ ভারতের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, শাহরুখপুত্র আরিয়ান খান নাকি চার বছর ধরে মাদক নিচ্ছেন। মাদককাণ্ডে দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা জেরার পর গতকাল বিকেলে আরিয়ান খানকে গ্রেপ্তার দেখায় মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। সন্ধ্যায় মেডিকেল চেকআপের পর আদালতে তোলা হলে ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে তাঁকে এক দিনের হেফাজতে রাখার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়। সেখানেই চার বছর ধরে মাদক সেবনের কথা স্বীকার করেছেন শাহরুখপুত্র।

default-image

জিজ্ঞাসাবাদে প্রথমে বলেছিলেন, জীবনে এই প্রথম মাদক নিয়েছেন তিনি। কিন্তু আরিয়ানের সেই স্বীকারোক্তি বিশ্বাস করেননি কর্মকর্তারা। একসময় জানা গেল, চার বছর ধরে মাদক সেবন করছেন আরিয়ান। দুবাই, লন্ডন এবং আরও অন্যান্য দেশে গিয়েও নেশা করতেন তিনি। যদিও এসব খবরের চূড়ান্ত সত্যতা পাওয়া যায়নি।

টাইমস অব ইন্ডিয়া মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বরাত জানিয়েছে, তারা ১৩ গ্রাম কোকেন, ২১ গ্রাম চরস, ২২টি এমডিএমএ বড়ি ও ৫ গ্রাম মেফেড্রোন এবং নগদ এক লাখ ৩০ হাজার রুপি জব্দ করেছে। আরিয়ান খানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি এনডিপিএসের ২৭ নম্বর ধারায় মামলা করা হয়েছে।

default-image

অপরাধ প্রমাণ হলে সর্বোচ্চ শাস্তি এক বছর কারাদণ্ড অথবা সর্বোচ্চ ২০ হাজার রুপি জরিমানাসহ কারাদণ্ড হতে পারে। আজ বিকেলে আরিয়ানের জামিন শুনানি হওয়ার কথা। ছেলের পক্ষে আইনি লড়াই চালাতে মুম্বাইয়ের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডেকে নিয়োগ দিয়েছেন শাহরুখ খান।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন