বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, মুম্বাইয়ের একটি তারকা হোটেলের সঙ্গে কথা বলা শুরু করেছিল সিদ্ধার্থ ও শেহনাজের পরিবার। ডিসেম্বরকে সামনে রেখে বিয়ের সব প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছিল। সংগীত পরিচালক আনু মালিকের ভাই আবু মালিক ‘বিগ বস ১৩’-তে সিদ্ধার্থদের সহপ্রতিযোগী ছিলেন। আবু মালিক আগেও জানিয়েছিলেন, সিদ্ধার্থকে বিয়ের জন্য রাজি করানোর দায়িত্ব তাঁকেই দিয়েছিলেন শেহনাজ। আবু বলেন, ‘যত দূর মনে পড়ে, গত বছরের ২২ মার্চ শেহনাজ আমাকে কথাগুলো বলেছিল, সম্ভবত প্রথম লকডাউনের এক দিন আগে।’

default-image

গত বুধবার রাতে সিদ্ধার্থের বাড়িতেই ছিলেন শেহনাজ। বৃহস্পতিবার সকাল সাতটায় সিদ্ধার্থের ঘরে ঢুকে সিদ্ধার্থের কাছ থেকে কোনো সাড়া পাচ্ছিলেন না। একপর্যায়ে মাথা কোলে তুলে নিয়ে তাঁকে ডাকতে থাকেন শেহনাজ। সিদ্ধার্থের শরীর ঠান্ডা হয়ে গেছে বুঝতে পেরেই ছুটে নিচতলায় গিয়ে সিদ্ধার্থের মা–বোনদের খবর দেন। সঙ্গে সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্স ডাকা হয়। পরে প্রায় সাড়ে ১০টায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সিদ্ধার্থকে। সেখানে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

default-image

মডেল হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন সিদ্ধার্থ। টেলিভিশন ধারাবাহিক ‘বাবুল কা আঙ্গন ছুটে না’–এ অভিনেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন তিনি। ‘বালিকা বধূ’ ধারাবাহিক তাঁকে পরিচিতি এনে দেয়। রিয়েলিটি শো ‘বিগ বস ১৩’–এর সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রতিযোগী ছিলেন সিদ্ধার্থ। এই সিজনে বিজয়ী হয়েছিলেন তিনি।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন