বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভক্তদের মধ্যে এ নিয়ে নানা রকম আলোচনা। বিনোদন অঙ্গনেও চলছে গুঞ্জন। সেগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে, এখনই সন্তান নিতে না চাওয়ার কারণেই নাকি সামান্থা ও নাগার সংসার ভেঙেছে। এই সম্ভাবনায় জল ঢেলে দিয়েছেন ‘শকুন্তলম’ ছবির প্রযোজক নীলিমা গুনা। সন্তান না নেওয়ার কারণেই সামান্থা ও নাগার সংসার ভেঙেছে, এটি একেবারেই সত্য নয়, জানিয়েছেন তিনি। এক সাক্ষাৎকারে নীলিমা জানিয়েছেন, তাঁর বাবা পরিচালক গুনাশেখর যখন গত বছর সামান্থাকে ‘শকুন্তলম’ ছবিটি করার প্রস্তাব দেন, অভিনেত্রী রাজি হননি। কারণ, ওই সময় তাঁরা সন্তান নেওয়ার পরিকল্পনা করছিলেন। নীলিমা বলেন, ‘বাবা গত বছর সামান্থাকে “শকুন্তলম” ছবিতে কাজ করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। গল্পটা শুনে তিনি দারুণ উচ্ছ্বসিত হয়ে ওঠেন। তিনি আমাদের জানিয়েছিলেন, আগামী জুলাই ও আগস্টের মধ্যে শুটিং শেষ করতে হবে, কারণ তাঁরা সন্তান নেওয়ার কথা ভাবছেন।’ নীলিমা আরও জানিয়েছেন, সামান্থা এই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য রাজি হয়েও যেন দ্বিধার মধ্যে ছিলেন। কারণ, কোনো কারণে যদি শুটিংয়ে সময় বেশি লেগে যায়, তাঁদের পরিকল্পনা ভেস্তে যাবে। কারণ, ‘শকুন্তলম’ একটি পৌরাণিক সিনেমা, কাজটি করা সময়সাপেক্ষ।

default-image

সামান্থাকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ট্রল করায় গত শুক্রবার সরব হন অভিনেত্রী নিজেই। গর্ভপাত, বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক, সন্তান নিতে না চাওয়া, অন্য সুবিধাভোগসহ নানা অপবাদের জবাব দেন তিনি। তাঁর দাবি, এসব রটনা। এসব অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই। আর এসব নিয়ে যতই খোঁচাখুঁচি করা হোক, তাঁর মনোবল টলানো যাবে না।

default-image

২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে বিয়ে করেছিলেন সামান্থা রুথ প্রভু ও নাগা চৈতন্য। গত সপ্তাহে এক যৌথ বিবৃতি দিয়ে নিজেদের বিবাহবিচ্ছেদের কথা জানান তাঁরা।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন