সানিয়া মালহোত্রার প্রথম ছবি ‘দঙ্গল’ মুক্তি পায় ২০১৬ সালে। আর ভারতীয় সিনেমার ইতিহাসে এখনো সবচেয়ে অর্থ উপার্জনকারী ছবি এটিই। মাত্র ৮০ কোটি টাকা খরচ করে বানানো ছবিটি বক্স অফিস থেকে তুলে এনেছিল ২ হাজার ৪০০ কোটি টাকা! তবে আমির খানের ছায়া থেকে বেরিয়ে, আলাদা করে নিজের অভিনয়প্রতিভা চেনাতে বেশি সময় নেননি সানিয়া। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে সানিয়া অভিনীত ‘পাগলাইত’। এখানে তাঁকে দেখা গেছে এক বিধবা নারীর চরিত্রে, যে জীবনের মূল স্রোতে ফিরতে মরিয়া। ২৬ মার্চ ছবিটি নেটফ্লিক্সে মুক্তির পর থেকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁকে নিয়েই চলছে আলোচনা, টুইটারের ট্রেন্ডিংয়ে উঠে এসেছেন তিনি। সমালোচক আর সাধারণ দর্শক, দুই পক্ষের মুখেই সানিয়ার ভূয়সী প্রশংসা।

default-image
বিজ্ঞাপন

অভিনয়ের ওপর কখনোই কোনো কোর্স করেননি সানিয়া মালহোত্রা। এমনকি স্কুল-কলেজে থাকতেও সেভাবে মঞ্চে ওঠা হয়নি। তবু সব সময় অভিনেত্রী হতে চেয়েছিলেন তিনি। কখনো অভিনয় না শিখে কীভাবে এত ভালো অভিনয় করেন? ২৯ বছর বয়সী সানিয়ার ঝটপট উত্তর, ‘সেটে গিয়েই শিখে নিই। কী করব!’ সেটে গিয়ে অভিনয় শিখেই তিনি ‘পতাকা’, ‘বাঁধাই হো’, ‘ফটোগ্রাফ’, ‘শকুন্তলা দেবী’, ‘লুডো’ সিনেমায় দুর্দান্ত অভিনয় করে বলিউডের মতো নামকরা সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে বড় বড় তারকাকে ঠেলে সরিয়ে ঠিকই নিজের জায়গা করে নিয়েছেন। তাই তো আরেক বলিউড তারকা কঙ্গনাও তাঁর ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। এক টুইটে কঙ্গনা লেখেন, ‘সানিয়া অস্বাভাবিক রকমের স্বাভাবিক অভিনেত্রী। আমি খুবই খুশি যে মানুষ এখন তাঁর প্রতিভা আর পরিশ্রমের কদর করতে শুরু করেছে। নেটফ্লিক্সে নাকি মানুষ হুমড়ি খেয়ে “পাগলাইত” দেখছে আর দুই হাত ভরে সানিয়ার প্রশংসা করছে। এসবই তোমার প্রাপ্য। ভালোবাসা জেনো।’

default-image

এবার সানিয়াকে দেখা যাবে ‘লাভ হোস্টেল’ সিনেমায়, বিক্রান্ত মাসেই আর ববি দেওলের সঙ্গে। নেটফ্লিক্সের ‘মীনাক্ষী সুন্দরেশ্বর’ ছবিতেও দেখা যাবে তাঁকে।

default-image
বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন