খেতে ভালোবাসেন সোনম কাপুর। তাই কখনো নায়িকা হতে চাননি। কেননা, নায়িকা হওয়ার জন্য সবার আগে সব প্রিয় খাবারকে টা টা বাই বাই বলতে হবে। পকেটমানি দেওয়া হতো না সোনমকে। তাই মাত্র ১৫ বছর বয়সে হোটেলের ওয়েট্রেস হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন সোনম। কিন্তু ৭ দিনের মাথায় তাঁর চাকরি চলে যায়।

default-image

২০০৫ সালে ২০ বছর বয়সে সঞ্জয় লীলা বানসালি পরিচালিত ব্ল্যাক সিনেমার সেটে সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেন সোনম। তখন রানী মুখার্জির কাছ থেকে নাচের তালিম নেন সোনম। সে সময় থেকেই সঞ্জয় লীলা বানসালি সোনম কাপুরকে বলতে থাকেন, ‘তুমি সিনেমায় আসো। বড় পর্দায় তুমি ভালো করবে।’ সঞ্জয় লীলা বানসালির কথা মনে নিয়েছিলেন সোনম। এর ২ বছর পর ৩০ কেজি ওজন ঝরিয়ে সঞ্জয় লীলা বানসালির সাওয়ারিয়া সিনেমার মধ্য দিয়ে অভিষেক ঘটে সোনমের।

default-image
বিজ্ঞাপন

সোনম কাপুর যে স্কুলে পড়তেন, সেখানেই এক ক্লাস ওপরে পড়তেন চাচাতো ভাই অর্জুন কাপুর। স্কুলে সব সময় সোনম ভাইয়ের দাপটে চলতেন। তাই একদিন সবাই মিলে অর্জুন কাপুরকে পিটিয়েছিল। স্কুলে থাকতেই প্রথম প্রেম হয়েছিল সোনমের। কিন্তু সোনম মোটা হয়ে যাচ্ছিলেন বলে তাঁর সঙ্গে ব্রেকআপ করেন সেই ছেলে।

default-image

এরপর সোনম প্রেম শুরু করেন রণবীর কাপুরের সঙ্গে। দুজনে একসঙ্গে জুটি বেঁধে পা রাখেন বলিউডের রাস্তায়। রণবীরের সঙ্গে ব্রেকআপের পর সোনম বলেছিলেন, এই জীবনে আর কখনোই কোনো অভিনেতাকে ডেট করবেন না! সেই কথা রেখেছিলেন সোনম। ২০১৮ সালের ৮ মে সোজা বিয়ে করেন ব্যবসায়ী আনন্দ আহুজাকে।

default-image

ভাগ মিলখা ভাগ ছবির চিত্রনাট্য এতটাই পছন্দ হয়েছিল যে যেকোনো মূল্যে তিনি এই সিনেমার অংশ হতে চেয়েছিলেন। এই ছবির জন্য সোনমের পারিশ্রমিক ছিল মাত্র ১১ রুপি। আর এই মুহূর্তে সোনম বলিউডের ফ্যাশন আইকন। ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া এ শিল্পী ডায়াবেটিসের রোগী।

default-image
মন্তব্য পড়ুন 0