default-image

‘তরলা’ ছবির প্রসঙ্গে হুমা বলেছেন, ‘তরলা দলাল আমাকে আমার ছোটবেলার কথা মনে করিয়ে দিয়েছেন। আমার মায়ের রান্নাঘরে তরলার লেখা রান্নার এক বই সব সময় থাকত। মা সেই বই দেখে আমাকে টিফিনের জন্য হরেক রকম খাবার রান্না করে দিতেন। এ সম্পর্কে আরেকটা কথাও আমার স্পষ্ট মনে আছে। মা একবার তরলার আম–আইসক্রিমের রেসিপি বানাচ্ছিলেন। আর আমি তখন মাকে এ ব্যাপারে সাহায্য করেছিলাম। এই ভূমিকায় অভিনয়ের মাধ্যমে আমি আমার ছোটবেলার সুন্দর স্মৃতিগুলো আবার স্পর্শ করতে পারলাম। আর তাই আমি রণি, নিতীন আর অশ্বিনীর কাছে কৃতজ্ঞ। এই প্রেরণাদায়ী চরিত্রে অভিনয় করার জন্য আমার প্রতি তাঁরা আস্থা রেখেছেন, এটা অনেক বড় ব্যাপার।’

default-image

তরলা দলাল ঘরোয়া আর নিরামিষ রান্নার পরিভাষা বদলে দিয়েছিলেন। একজন ভিন্ন পেশার নারী হয়েও তিনি হেঁশেলে নিজের জাদু দেখিয়েছিলেন। কত সহজ উপায়ে কত বাহারি পদ রান্না করা যায়, তা তরলা দলালের রান্নার বইয়ের পাতা ওলটালে দেখা যাবে। রন্ধনের ক্ষেত্রে প্রথম ভারতীয় হিসেবে ২০০৭ সালে তাঁকে পদ্মশ্রী সম্মানে সম্মানিত করা হয়েছিল।

default-image

এ বছর হুমা অভিনীত ‘ডবল এক্সেল’ছবিটি মুক্তি পাবে। হুমার সঙ্গে এই ছবিতে আছেন সোনাক্ষী সিনহা। নেটফ্লিক্সের ‘মনিকা ও মাই ডার্লিং’ ছবিতে আছেন তিনি। সোনি লিভের সিরিজ ‘মহারানি’র দ্বিতীয় মৌসুমে আবার তাঁকে স্বমহিমায় দেখা যাবে।া

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন