বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, আরিয়ান খান সেই পার্টিতে মাদক নেওয়ার কথা স্বীকার করেছেন। তবে অনুশোচনা করে জানিয়েছেন, মাদক নিয়ে ভুল করেছেন তিনি। তিনি দাবি করেছেন, এর আগে কখনো এমন কিছু গ্রহণ করেননি তিনি।

গ্রেপ্তারের পর তাঁকে জে জে হাসপাতালে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এনসিবি সূত্রে জানানো হয়েছে, সেই পার্টিতে জামাকাপড়ে সেলাই করে, মেয়েদের ব্যাগের হাতলের মধ্যে লুকিয়ে রাখা হয়েছিল মাদক। শাহরুখপুত্রের লেন্স রাখার বাক্স থেকেও নাকি মাদক উদ্ধার করেন এনসিবির কর্মকর্তারা।

default-image

আরিয়ান ছাড়া আরও আটক করা হয়েছে আরবাজ মার্চেন্ট, মুনমুন ধমেচা, নূপুর সারিকা, ইশমিত সিংহ, মোহক জয়সওয়াল, বিক্রম ছোকার ও গোমিত চোপড়াকে। শনিবার রাতের মাদক পার্টিতে ছিলেন তাঁরা সবাই। এদিকে তাঁদের ছুটির দিনের আদালতে হাজির করা হয়। সেখানে পাপারাজ্জির ক্যামেরায় ধরা পড়েন আরিয়ানের মা গৌরী খান।

default-image

এনসিবি সূত্রে থেকে জানা গেছে, আরিয়ান খানের মোবাইলও খতিয়ে দেখা হবে। তাঁর সঙ্গে মাদক কারবারিদের সরাসরি যোগাযোগ আছে কি না, তা দেখার জন্য। ইতিমধ্যেই আইনজীবী সতীশ মানশিন্ডের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন শাহরুখ। এ বিষয়ে যদিও এখনো মুখ খোলেননি খান পরিবারের কোনো সদস্য।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন