default-image

পুলিশও জোর কদমে এই মামলার তদন্তে নেমে পড়েছিল। গতকালই সেই ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশি তদন্তে উঠে এসেছে যে সেই অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তির নাম মনবিন্দর সিং। তাঁকে কিছুদিনের জন্য পুলিশি হেফাজতে পাঠানো হয়েছে।
সংবাদ সংস্থা এএনআইর খবর অনুযায়ী, মঙ্গলবার মনবিন্দার সিংকে আদালতে পেশ করা হয়েছিল। উত্তর প্রদেশের লক্ষ্মৌর এই ব্যক্তিকে ২৮ জুলাই পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতে রাখা হবে। রিপোর্ট অনুযায়ী, ক্যাটরিনাকে হুমকি যিনি দিয়েছিলেন, সেই মনবিন্দার সিং একজন ‘স্ট্রাগলিং’ অভিনেতা। তিনি ক্যাটের অনেক বড় ভক্ত। মনবিন্দার ক্যাটরিনাকে বিয়ে করতে চাইতেন। আর হরহামেশাই এই বলিউড নায়িকার সঙ্গে মনবিন্দার তাঁর ছবি এবং ভিডিও এডিট করে ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করতেন। পুলিশ জানিয়েছে যে মনবিন্দার মানসিক ভারসাম্যহীন।

ভিকির অভিযোগ যে বেশ কিছুদিন ধরে এক ব্যক্তি ক্যাটকে নেট দুনিয়ায় অনুসরণ করছিলেন। পাঞ্জাবি গায়ক সিধু মুসেওয়ালার হত্যার ঘটনার পর সালমান খান প্রাণনাশের হুমকি পেয়েছিলেন। তারপর বিনোদনজগতের বেশ কয়েকজন তারকা হত্যার হুমকি পেয়েছেন। সালমানকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছিলেন গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই।

তাই শুরুতে ক্যাটের এই হত্যার হুমকির পেছনে লরেন্স বিষ্ণোই জড়িত আছে বলে সন্দেহ করেছিল মুম্বাই পুলিশ। এখন পুলিশি তদন্তে দেখা গেছে, ক্যাটের এক পাগল প্রেমিকের কাণ্ডকারখানা সব। প্রাণনাশের হুমকি পাওয়ার পর মুম্বাই পুলিশ ক্যাটকে বিশেষ নিরাপত্তাব্যবস্থা দিয়েছিল। এই বলিউড নায়িকার ‘মেরি ক্রিসমাস’ ছবির সেটে সুরক্ষা ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল। ক্যাটকে ‘টাইগার থ্রি’ ছবিতে সালমান খানের সঙ্গে দেখা যাবে।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন