default-image

তাপসীকে সম্প্রতি দেখা গেছে ‘শাবাশ মিঠু’ ছবিতে। বাঙালি পরিচালক সৃজিত মুখার্জি পরিচালিত এই ছবি বক্স অফিসে চূড়ান্ত ব্যর্থ হয়েছে। আর তাই এখন তাপসীর ওপর অনুরাগ কতটা ভরসা করতে পারছেন, তা সাংবাদিক সম্মেলনে জিজ্ঞেস করলে পরিচালক বলেন, ‘আমি একদমই এসব নিয়ে মাথা ঘামাই না। তাপসীর সঙ্গে আগে “মনমর্জিয়া” ছবিতে কাজ করেছি। এই ছবির সফলতার কথা সবার জানা। তাপসী অভিনেত্রী হিসেবে দুর্দান্ত আর তেমনই পরিশ্রমী। আমার ওপর ওর সম্পূর্ণ আস্থা আছে। আমার হাত ধরে যে চলে, তার হাত আমি ছাড়ি না।’

default-image

একের পর এক বলিউড ছবি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ছে। সদ্য মুক্তি পাওয়া ছবি ‘শামশেরা’র অবস্থাও তথৈবচ। এদিকে দক্ষিণি ছবির দৌরাত্ম্য বেড়েই চলেছে। অনুরাগের কাছে বলিউডের বেহালের কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘দক্ষিণি ছবিগুলো নিজেদের শিকড় থেকে বিচ্ছিন্ন হয়নি। তামিল, তেলেগু, মালয়ালম, কন্নড় ছবির নির্মাতারা নিজেদের শিকড়ের সঙ্গে যুক্ত থেকে ছবি বানান। কিন্তু হিন্দি সিনেমার কোনো শিকড় নেই। এখন হিন্দি ছবির নির্মাতারা দর্শককে প্রভাবিত করতে নিজেদের শৈলী আর ঘরানার বাইরে গিয়ে ছবি নির্মাণ করছেন। এই নতুন শৈলী বিপুলসংখ্যক দর্শকের বোধগম্য হচ্ছে না।’ বলিউডের এই খ্যাতনামা পরিচালক আরও বলেছেন, ‘এখন মুখে ইংরেজি বুলি, এদিকে সব হিন্দি ছবি বানাচ্ছেন। মেইন স্ট্রিম চিত্রনির্মাতারা যদি নিজের স্টাইলে ছবি বানান, তাহলে তা নিশ্চয় চলবে। এই দেখুন “গাঙ্গুবাঈ”, “ভুল ভুলাইয়া টু” অতিমারির মধ্যেও ভালো ব্যবসা করেছে। “লার্জার দ্যান লাইফ” ছবি বানালেই যে তা ভালো চলবে, এ রকম কথা নেই।’ ‘দোবারা’ ছবিতে তাপসী ছাড়া বাঙালি অভিনেতা শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় আছেন।

default-image

এদিনের অনুষ্ঠানে অনুরাগ বলেন, ‘শাশ্বতর মতো অভিনেতাকে এই ছবিতে দেখা যাবে। “কাহানি” ছবিতে ওর অভিনয়ের দাপট দেখা গেছে। শাশ্বত আমার প্রিয় অভিনেতাদের একজন।’ অনুরাগের ‘দোবারা’ ছবিটি স্প্যানিশ ছবি ‘মিরেজ’-এর হিন্দি রিমেক। ২০১৮ সালে ‘মিরেজ’ মুক্তি পেয়েছিল। তাপসীকে কেন্দ্র করে এই ছবির গল্প বোনা হয়েছে। ছবিটি আগামী ১৯ আগস্ট বড় পর্দায় আসছে।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন