আগামী ৪ ডিসেম্বর হাংসিকা ও সোহেল গাঁটছড়া বাঁধবেন। নিজের বিয়ের তোড়জোড় দেখতে স্বয়ং কনে, মানে হাংসিকা গত শনিবার জয়পুরের মুন্ডোতা প্যালেসে গিয়েছিলেন। সেখানে গিয়ে এই দক্ষিণি নায়িকা পোলো ম্যাচ দেখেন, মধ্যাহ্নভোজ করেন। খবর অনুযায়ী, সোহেল ও হাংসিকার পরিবার ১ ডিসেম্বর জয়পুর পৌঁছাবে। হাংসিকা ও সোহেল তাঁদের বিয়েকে রাজকীয় রূপ দিতে চলেছেন। বিয়ের আচার–অনুষ্ঠানের মধ্যে সবার মনোরঞ্জনের জন্য নানা আয়োজন তাঁরা রাখতে চলেছেন।

২ ডিসেম্বর তাঁদের বিবাহ–পূর্ববর্তী অনুষ্ঠান শুরু হয়ে যাবে। এদিন সকালে হবে গায়েহলুদ পর্ব। রাতে ঝলমলে ‘সুফি নাইট’ অনুষ্ঠিত হবে। ৩ ডিসেম্বর অত্যন্ত জাঁকজমকের সঙ্গে সংগীত ও মেহেদি অনুষ্ঠান হবে। ৪ ডিসেম্বর এ জুটির জীবনের সবচেয়ে অপেক্ষার দিনটি আসতে চলেছে। এদিনই তাঁদের চার হাত এক হবে। বিয়ের অনুষ্ঠানকে তাঁরা এক অন্য রূপ দিতে চলেছেন। তাই সোহেল ও হাংসিকা বিয়ের দিন পোলো ম্যাচ ও ক্যাসিনো পার্টির পরিকল্পনা করেছেন বলে জানা গেছে।

হাংসিকার বিয়ের গুঞ্জনের শুরুতে তাঁর হবু বরের সম্পর্কে সেভাবে তথ্য ফাঁস হয়নি। তবে এখন সোহেলকে ঘিরে বেশ কিছু তথ্য উঠে এসেছে। হাংসিকা ও সোহেল জীবনসঙ্গী হয়ে ওঠার আগে ব্যবসায়িক সঙ্গী ছিলেন। ২০২০ সাল থেকে তাঁরা দুজন মিলে এক ইভেন্ট প্ল্যানিং সংস্থা চালাচ্ছেন। আর এই সূত্রে সোহেল ও হাংসিকা একে অপরের কাছে এসেছেন। দুই বছরের এ প্রেমের সম্পর্ক এবার এক নতুন পরিচয় পেতে চলেছে।

কিছুদিন আগে ইনস্টাগ্রাম পোস্টে হাংসিকা তাঁর বিয়ের খবর প্রকাশ্যে এনেছেন। তিনি প্যারিসের আইফেল টাওয়ারের নিচে সোহেলের সঙ্গে তাঁর এক রোমান্টিক ছবি পোস্ট করেছেন। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, সোহেল হাঁটু গেড়ে বসে তাঁকে বিয়ের প্রস্তাব দিচ্ছেন। ছবিটি দেখে মনে হচ্ছে, সিনেমার কোনো দৃশ্য তাঁরা বাস্তবে জীবন্ত করেছেন। ছবিটির সঙ্গে হাংসিকা লিখেছেন, ‘এখন ও আমার চিরদিনের।’

হাংসিকা ও সোহেলের বিয়েকে ঘিরে আরও নতুন এক তথ্য উঠে এসেছে। এই জুটির বিয়ের লাইভ স্ট্রিমিং এক ওটিটি প্ল্যাটফর্মে করা হবে বলে জোর গুঞ্জন। হাংসিকার ঘনিষ্ঠ একজনের থেকে ফাঁস হয়েছে যে এ ব্যাপারে তাঁদের ডিজনি প্লাস হটস্টারের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে।

হাংসিকা শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয়জীবন শুরু করেছিলেন। হৃতিক রোশনের ‘কই মিল গায়া’ ছবিতে ছোট্ট ‘টিনা’র চরিত্রে সবার নজর কেড়েছিলেন। একাধিক টেলিভিশন ধারাবাহিকের মাধ্যমে সবার ঘরে পৌঁছে গিয়েছিলেন। বলিউডে সেভাবে সাফল্য পাননি। তবে দক্ষিণি ছবির দুনিয়ায় তাঁর দাপট বেশ ভালোই। তাঁকে খুব শিগগির তামিল ছবি ‘রাউড়ি বেবি’তে দেখা যাবে। এ ছাড়া তাঁর হাতে আরও তিনটি বড় সিনেমা আছে।