default-image

জানা যায়, শুধু হুমকি দিয়েই শেষ নয়, সালমানকে হত্যা করতে দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত করার রাইফেলও কিনেছিলেন অভিযুক্ত লরেন্স বিষ্ণোই। ‘দাবাং’ তারকাকে হত্যা করতে এক ভাড়াটে খুনি দিনের পর দিন তাঁর বাড়ির সামনে ওত পেতে বসে ছিল। নেহাতই ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান তিনি। মৃত্যুর হুমকি পাওয়ার পর থেকেই নিজের গতিবিধি সীমিত করেছেন সালমান। এখানেই শেষ নয় আত্মরক্ষার জন্য পুলিশের কাছে অস্ত্র রাখার আবেদন করেন অভিনেতা।

default-image

২২ জুলাই এ জন্য মুম্বাই পুলিশ কমিশনার বিবেক পানসলকরের সঙ্গে দেখা করেন সালমান। এবার জানা গেল, নিরাপত্তার স্বার্থে বুলেটপ্রুফ গাড়ি ব্যবহার করছেন অভিনেতা। সালমান মূলত যাতায়াতের জন্য টয়োটা ও ল্যান্ড ক্রুজার গাড়ি ব্যবহার করেন। গত কয়েক দিনে অভিনেতার ভক্ত ও পাপারাজ্জিদের তোলা ছবি ও ভিডিও বিশ্লেষণ করে বিভিন্ন ভারতীয় গণমাধ্যম বলেছে, নিজের পুরোনো গাড়িতে বুলেটপ্রুফ বর্ম ও কাচ লাগিয়েছেন সালমান। তবে সালমান সত্যি সত্যি এখন বুলেটপ্রুফ গাড়ি ব্যবহার করছেন কি না, তা আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

default-image

অভিনেতাকে সর্বেশেষ প্রকাশ্যে দেখা যায় ২৫ জুলাই। সেদিন মুম্বাইতে নিজের প্রযোজিত ছবি ‘বিক্রান্ত রোনা’র প্রচারণায় হাজির হয়েছিলেন তিনি।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন