default-image

মূলত সিনেমা থেকে নিত্যার বিরতি নেওয়ার খবরের পর তাঁর বিয়ের গুঞ্জন আরও জোরালো হয়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘এই প্রথম নয়, আগেও আমি অনেকবারই এ ধরনের বিরতি নিয়েছি। নিজেকে তরতাজা করতে আমার এ ধরনের বিরতি দরকার হয়। আমি মানুষটাই এমন। কেবল আমিই নই, অনেক অভিনেতাই এটা করেন। তবে অনেকের কাছে হয়তো বিরতির বিষয়টা নতুন। আমি রোবট বা মেশিনের মতো সারাক্ষণ কাজ করে যেতে পারি না। আমি এভাবে বেড়ে উঠিনি।’

default-image

কেবল এটাই নয়, নিত্যা ব্যাখ্যা করে জানিয়েছেন, এই বিরতি কেন তাঁর জন্য জরুরি ছিল। ‘লকডাউনের সময় প্রচুর কাজ জমা হয়েছিল। তাই পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর প্রতিদিন কাজ করেছি। আমার জন্য খুবই কঠিন সময় ছিল সেটা। আমার হাতে ছয়টা প্রজেক্ট আছে, যা খুব শিগগির মুক্তি পাবে।’

default-image

কিছুদিন আগে পায়ে আঘাত পেয়েছিলেন নিত্যা। তবে ভক্তদের আশ্বস্ত করে অভিনেত্রী বলেন, ‘গোড়ালির অবস্থা আগের চেয়ে ভালো। ভালোমতো হাঁটাহাঁটি করতে পারছি। অবশ্য বিছানায় বসে বসেও অনেক মজা করেছিলাম। ভাগ্যিস দুর্ঘটনাটা যখন ঘটে, তখন প্রজেক্টগুলো শেষ করেছিলাম।’ হিন্দি দর্শকদের কাছে তুলনামূলকভাবে কম পরিচিত হলেও দক্ষিণ ভারতে নিত্যা মেনন চেনা মুখ। ১৬ বছরের ক্যারিয়ারে মালয়ালম, তেলেগু, তামিল, কন্নড় ভাষার সিনেমায় অভিনয় করেছেন। অক্ষয় কুমার, বিদ্যা বালানের সঙ্গে ‘মিশন মঙ্গল’ দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয় তাঁর।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন