নিজের চরিত্রটি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘চরিত্রটি একেবারে ভিন্ন। অভিনয় করাটা একটু কঠিন ছিল। ছবিতে আমার লুকও অন্য রকম। দেখে সবাই চমকে উঠবে। মনে হবে সত্যিই কি এটা কৃতি? “ভেড়িয়া”র মতো বিনোদনমূলক চিত্রনাট্য আগে পাইনি। চিত্রনাট্য শুনে খুশিতে লাফিয়ে উঠেছিলাম। এই ছবি সত্যিই ব্যতিক্রমী। ভারতীয় সিনেমাতে এ ধরনের ছবি আগে হয়নি। অন্য ধারার ছবিতে ভিন্ন বেশে আমি—সব মিলিয়ে দারুণ অভিজ্ঞতা।’

বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে আট বছর পার করতে চলেছেন কৃতি। নিজের এই চলচ্চিত্র-সফর থেকে কী শিখেছেন, জানতে চাইলে এই বলিউড নায়িকা জানিয়েছেন, ‘সব থেকে বড় শিক্ষা পেয়েছি যে সফলতা ও ব্যর্থতা আপেক্ষিক। প্রতিদিনই এসবের সংজ্ঞা বদলে যায়। সব সময় তাই নিজের অন্তরের কথা শোনা উচিত। আর নিজেকে যেটা সন্তুষ্ট করে আর আনন্দ দেয়, সেটাই করা উচিত। হাজার লোক হাজার উপদেশ দেবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নিজের মানসিক খুশি আর শান্তি বড় কথা।’

ভবিষ্যতে কৃতিকে বেশ কয়েকটি ভিন্ন স্বাদের ছবিতে দেখা যাবে। যার মধ্যে একটি নাম ঠিক না হওয়া অমিত যোশীর সিনেমা। শহীদ কাপুরের বিপরীতে এক ‘রোবট’-এর চরিত্রে দেখা যাবে তাঁকে। ছবিতে শহীদ রোবটবিশেষজ্ঞ। রোমান্টিক ঘরানার ছবিটির শুটিং এর মধ্যেই শুরু হয়ে গেছে।
মুক্তির অপেক্ষায় আছে কৃতির ‘গণপথ’, ‘আদিপুরুষ’-এর মতো বড় বাজেটের ছবি।