default-image

অনুমিতভাবেই প্রশ্ন ছিল নাগার সঙ্গে বিচ্ছেদ নিয়ে। এ প্রসঙ্গে সামান্থা বলেন, ‘বিচ্ছেদ খুবই কঠিন সিদ্ধান্ত ছিল। তবে এখন সব ঠিক আছে। আগের চেয়ে আমি এখন অনেক বেশি শক্তিশালী।’ বিচ্ছেদের পর অনেক তারকারই সাবেক স্বামীর সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক থাকে। সামান্থা-নাগার ক্ষেত্রেও কি তা–ই? করণের এমন প্রশ্নে কূটনৈতিক জবাবের ধারেকাছে না গিয়ে সামান্থা বলেন, ‘অবশ্যই তাঁর সম্পর্কে আমার তিক্ত ধারণা এখনো আছে। যদি আমাদের দুজনকে এক কক্ষে আটকে রাখেন, তাহলে সেখানে ধারালো কোনো বস্তু না রাখাই ভালো। আমি এখন তাঁর সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ধারেকাছে নেই... কিন্তু এটা হয়তো ভবিষ্যতে হতে পারে।’

default-image

বিচ্ছেদের পর আক্ষরিক অর্থেই জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছেন সামান্থা। মুম্বাইতে বেশি সময় দিচ্ছেন। তিন–চারটি হিন্দি ছবিতে তাঁর অভিনয়ের খবর শোনা যাচ্ছে। ইনস্টাগ্রামে প্রায়ই পোস্ট করছেন সাহসী সব ছবি। বিচ্ছেদের যন্ত্রণা ভুলে আবারও কি প্রেমে পড়েছেন তিনি? এ প্রশ্নের নেতিবাচক উত্তর দিয়ে সামান্থা জানান, এখনো প্রেমের জন্য তৈরি নন তিনি।

default-image

২০১৭ সালে ‘মানাম’, ‘ইয়ে মায়া চেসাভ’, ‘অটোনগর সুরিয়া’ সহকর্মী নাগা চৈতন্যকে বিয়ে করেন সামান্থা। ২০২০ সালের মাঝামাঝি থেকেই তাঁদের সংসার ভাঙার গুজব রটে। গত বছর এসে আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদের ঘোষণা দেন তাঁরা।

বলিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন