২০১৯ সালে একটি অনুষ্ঠানে পারফর্ম করার জন্য অগ্রিম অর্থ নিয়েও অনুষ্ঠানে উপস্থিত না হওয়ার অভিযোগ সানির বিরুদ্ধে। অভিযোগকারীর দাবি, অনুষ্ঠানে পারফর্ম করার জন্য সানি লিওনিকে ৩৯ লাখ টাকা অগ্রিম পরিশোধ করেন তিনি। কিন্তু অনুষ্ঠানের সময় তাঁর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাঁকে পাওয়া যায়নি এবং পরে সানি এই টাকা তাঁদের ফেরত দেননি।

এর জন্য কেরালা পুলিশের কাছে সানি লিওনি ও তাঁর স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবার ও অফিসের এক কর্মীর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪০৬, ৪২০ এবং ৩৪ ধারায় মামলা করেন তিনি। কিন্তু সানি লিওনি ও অন্যরা এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেন এবং তিনি উল্টো অভিযোগ করেছেন মিথ্যা মামলা দিয়ে তাঁকে হয়রানি করা হচ্ছে। তিনি জানান, তাঁর বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে, তার কোনো প্রমাণ নেই।

মামলা খারিজের জন্য সানি লিওনি হাইকোর্টে আবেদন করেন। সেখানে তিনি জানান, অনুষ্ঠানে উপস্থিত না থাকায় ওই ব্যক্তির কোনো ক্ষতি হয়নি। কিন্তু যে মামলার কোনো প্রমাণ নেই, সেই মামলার কারণে তাঁর ক্ষতি হচ্ছে। তিনি আরও উল্লেখ করেন গত জুলাইয়ে একই ব্যক্তি এই ঘটনায় দেওয়ানি মামলা করেন। কিন্তু প্রমাণের অভাবে ম্যাজিস্ট্রেট আদালত তা খারিজ করে দেন। তারই পরিপ্রেক্ষিতে কেরালা হাইকোর্ট এই মামলার স্থগিতাদেশ দেন। এই সময় সানি লিওনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।