বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কারাগার থেকে বের হওয়ার পর প্রথমবার জনসমক্ষে দেখা গেল ঢালিউডের আলোচিত অভিনয়শিল্পী পরীমনিকে। গতকাল শুক্রবার বিকেলের সংবাদ সম্মেলন মিট দ্য প্রীতিলতায় হাজির হয়েছিলেন তিনি। এফডিসির মান্না ডিজিটাল কমপ্লেক্সে শান্ত, মিষ্টি, সৌম্য চেহারার বাঙালি মেয়ে, অত্যন্ত শোভন ভঙ্গিতে কালো শাড়ি পরে এসেছিলেন জানাতে, তিনি আবার শুটিং শুরু করছেন। কিন্তু শাড়ির রং কেন কালো? ব্রিটিশবিরোধী স্বাধীনতাসংগ্রামী নারী প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারের মৃত্যুবার্ষিকী ছিল বলে?

default-image

প্রীতিলতা ছবিতে অভিনয় করছেন পরীমনি। ছবির জন্য প্রীতিলতার মতো করে সাজানো হয়েছিল তাঁকে। প্রীতিলতারূপী পরীর সেই সাজ দারুণ প্রশংসা কুড়িয়েছিল। ছবিটির শুটিং পুরোপুরি শেষ হওয়ার আগেই এলোমেলো হয়ে যায় সবকিছু। অনেক দিন পর, অনেক ঝড়ঝঞ্ঝা পেরিয়ে এবার ছবির বাকি অংশের শুটিং শুরু করার পালা। আগামী মাসের শেষের দিকে প্রীতিলতা ছবির শেষ লটের শুটিং শুরু হবে চট্টগ্রামে। আর এ শুটিংয়ের মধ্য দিয়ে আবার নিয়মিত কাজে ফিরছেন পরীমনি।

প্রীতিলতা ছবিতে উষাদি চরিত্রে দেখা যাবে শম্পা রেজাকে। কারাগার থেকে মাকে লেখা প্রীতিলতার চিঠি সংবাদ সম্মেলনে পড়ে শোনান এই অভিনেত্রী। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ছবির প্রযোজক মুহিদ হাওলাদার, পরিচালক রাশিদ পলাশ, চিত্রনাট্যকার গোলাম রাব্বানী প্রমুখ। পরীমনি বলেন, ‘প্রীতিলতার মতো একটি চরিত্র আমাকে করতে দেওয়া হয়েছে। এটা অনেক বড় একটা দায়িত্ব। আমার ওপর বিশ্বাস রেখে যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, আমি সেই বিশ্বাসের মর্যাদা রাখব। প্রীতিলতা যেভাবে তাঁর মায়ের কাছে আশীর্বাদ চেয়েছিলেন, আমিও সবার কাছে সে রকম আশীর্বাদ চাই।’

default-image

প্রীতিলতার ভূমিকায় অসমাপ্ত কাজ শুরু করতে যাচ্ছেন। কেমন লাগছে তাঁর? পরীমনি বলেন, ‘অনেক অনুভূতি আছে, প্রকাশ করা যায় না। প্রীতিলতা আমার কাছে সে রকম একটা অনুভূতি, যেটা আমি হুট করে প্রকাশ করতে পারব না। আমরা চাই, আমরা কী করছি, সেটা সবাই পর্দায় দেখুক। দুই বছর ধরে আমি প্রীতিলতাকে ধারণ করার চেষ্টা করেছি। শুটিংয়ে যাওয়ার পর দেখলাম, আমার চরিত্রটির নাম অলিভিয়া...।’

default-image

সংবাদ সম্মেলন শেষ করে ফেরার পথে পরীমনি কথা বলেন প্রথম আলোর সঙ্গে। এত দিন পর এফডিসিতে কেমন লাগল জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এফডিসিতে যাইনি, আমি গিয়েছি মিট দ্য প্রীতিলতার সংবাদ সম্মেলনে। নায়িকা হিসেবে আমি প্রথম যেদিন শুটিং করি, সেই শুটিং এফডিসিতে হয়নি। অভিনয়শিল্পী হিসেবে কাজ শুরু করার পর সমিতির খাতায় আমার নাম ওঠেনি।’ পরীমনির কণ্ঠে আক্ষেপের এই স্বর বলে দেয়, শিল্পী সমিতির সদস্যপদ স্থগিত করায় ভীষণ মর্মাহত হয়েছেন তিনি। যদিও এ নিয়ে সরাসরি কিছুই তিনি বলেননি। তবে তাঁর স্বরে রয়েছে প্রত্যয়, সমিতির খাতায় নাম না থাকুক, শিল্পী হিসেবে ঢালিউডে স্বাক্ষর তিনি রাখবেন।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন