তাঁরা জানিয়েছেন, এই ধরনের গুরুতর আঘাতের রোগীকে দীর্ঘদিন বিশ্রামে থাকতে হয়। প্রিয়াঙ্কার অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল রয়েছে।

চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, ফিজিওথেরাপি ও আধুনিক রিহ্যাবিলিটেশনের মাধ্যমে প্রিয়াঙ্কা দ্রুত সেরে উঠবেন।
দুর্ঘটনার খবর জানার পর ছেলে সহজকে দেখার দায়িত্ব নেন প্রিয়াঙ্কার সাবেক স্বামী রাহুল। তিনি জানিয়েছেন, সহজ ভালো আছে। প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে একবার ফোনে কথা হয়েছে তাঁর। অস্ত্রোপচারের পর বিকেলে তিনি দেখতে গিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কাকে।

বিচ্ছেদের প্রভাব সন্তানের ওপর পড়তে দেননি প্রিয়াঙ্কা ও রাহুল। মূলত মায়ের সঙ্গে থাকলেও বাবার সঙ্গেও সময় কাটায় সহজ। দুই বাড়িতেই তাঁর যাতায়াত রয়েছে।

আজ সকালে এক টুইটার পোস্টে পাশে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা সরকার। তিনি লিখেছেন, ‘আমাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার জন্য, শুভকামনা ও প্রার্থনার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। আমি একটু একটু করে সেরে উঠছি। যদিও পুরোপুরি সেরে উঠতে আমার সময় লাগবে। তত দিন আশা করি আপনারা আমার সঙ্গে থাকবেন।’