বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

এ ছবির বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, চরিত্রগুলো ফুটিয়ে তুলতে শিল্পীদের কোনো মেকআপ করানো হচ্ছে না। পরিচালক কাজী হায়াৎ জানান, গল্পের সময়কালকে তুলে আনতেই এ ব্যবস্থা। তিনি বলেন, ‘পুরো ছবিতে কোনো শিল্পীর মুখেই কোনো মেকআপ থাকবে না। আমরা সেভাবেই কাজ করছি। গল্পের বাস্তবতায় এটি করা হচ্ছে।’

ছবিটির প্রথম দিনের শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন জাহারা মিতু ও বাপ্পী চৌধুরী। ছবিতে দোলা চরিত্রে অভিনয় করছেন মিতু আর কামাল চরিত্রে বাপ্পী। মিতুর কাছে প্রথম দিনের শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এমন একটি ছবিতে কাজ করছি, যেটার নামই অনেক ভারী। লেখক ও পরিচালক দুজনই খ্যাতিমান। তা ছাড়া দেড় থেকে দুই বছর পর ক্যামেরার সামনে দাঁড়ালাম। সব মিলে প্রথমে নার্ভাস ছিলাম। কিন্তু ভাগ্য ভালো যে প্রথম শটেই পরিচালকের আশীর্বাদ পেয়েছি। এ জন্য ভেতরে-ভেতরে সাহস পাচ্ছি এখন।’

default-image

মিতু জানালেন, প্রায় ৯ বছর আগে গল্পটি পড়েছিলেন তিনি। যেকোনো গল্প বা উপন্যাস পড়লে চরিত্রগুলো তাঁর মাথার ভেতরে সক্রিয় হয়ে ওঠে। গল্পটি পড়ে কলেজপড়ুয়া চঞ্চল মেয়ে দোলা চরিত্রটি তাঁকে স্পর্শ করেছিল। মিতু বলেন, ‘সেই চরিত্রেই আমি অভিনয় করছি। এটা আমার কাছে কাকতালীয়। অনেক খুশি আমি।’

default-image

শুটিং শুরু করার কিছুদিন আগে পরিচালক ও লেখকের সঙ্গে চরিত্রটি নিয়ে আলোচনায় বসেছিলেন মিতু। তাঁর জানার ইচ্ছা ছিল, কাজ শুরু করার আগে কে কীভাবে দোলাকে দেখছেন। মিতু বলেন, ‘দোলাকে নিয়ে পরিচালক ও লেখকের ভাবনার সঙ্গে আমার ভাবনা মিলছে কি না, সেটা বিনিময়ের জন্য তাঁদের সঙ্গে দেখা করেছিলাম। যাওয়ার পর আলোচনা করতে গিয়ে দেখলাম, দোলাকে নিয়ে তিনজনের ভাবনা মিলে গেছে। আর এ কারণে কাজটি আমার জন্য সহজ হচ্ছে অনেকখানি।’

default-image

গল্পের লেখকের সঙ্গে দেখা করতে পেরে দারুণ খুশি মিতু। তিনি বলেন, ‘আমাকে দেখে, আমার সঙ্গে কথা বলে, স্যার আমাকে বলছেন, “এই তো আমার দোলা। মনে হয় যেন তোমাকে নিয়েই চরিত্রটি লিখেছি।” এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কী হতে পারে!’

পরিচালক জানালেন, আগামী ২ অক্টোবর পর্যন্ত এফডিসিতে প্রথম ধাপের শুটিং চলবে। এরপর আরও দুটি ধাপে কাজ হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও হোতাপাড়ার লোকেশনে। ছবিতে আরও অভিনয় করছেন নাদের চৌধুরী, শিরিন আলম, রেবেকা প্রমুখ।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন