নিউইয়র্কের স্থানীয় সময় ৪ ডিসেম্বর রাত ১০টার পর ঢালিউড ফিল্ম অ্যান্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ড নামের অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদানের ফাঁকে শাকিব খান এ আহ্বান জানান। এই অনুষ্ঠানে তাঁকে অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো হয় এবং সম্মাননা প্রদান করা হয়।
অনুষ্ঠান শেষে প্রথম আলোর সঙ্গে কথা হয় শাকিব খানের। তিনি বলেন, ‘সিনেমা অঙ্গনে যারাই ভালো কাজ করার চেষ্টা করে, তাদের সবার প্রতি সব সময়ই আমার শুভকামনা থাকে। ভবিষ্যতেও অন্য যেসব প্রযোজক পরিচালকের চলচ্চিত্র মুক্তি পাবে, দর্শকের প্রতি অনুরোধ থাকবে, আপনারা সিনেমা হলে গিয়ে এসব ছবি দেখবেন। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের পাশে থাকার চেষ্টা করেন।’

কথায় কথায় শাকিব খান বললেন, ‘আরিফিন শুভ, সিয়াম, সাইমন, ইমন, নিরবসহ যারাই চলচ্চিত্রে অভিনয় করছে, সবাই আমার ভীষণ ভালোবাসার। ওরা সবাই আমার ছোট ভাইয়ের মতো। চলচ্চিত্রে ওরা সাফল হলে তো আমার ভালো লাগবে। তাই ওদের চলচ্চিত্রের প্রতি আমার শুভকামনা আগেও ছিল, এখনো আছে, ভবিষ্যতেও থাকবে।’
শাকিব খান বলেন, ‘আমি শুনেছি, “মিশন এক্সট্রিম” সিনেমাটি নিয়ে প্রযোজক, পরিচালক, অভিনয়শিল্পী থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট সবাই পরিশ্রম করেছে। তাই আমি সিনেমাটির সফলতা কামনা করছি।

একটি সিনেমা ব্যবসায়িকভাবে সফল এবং দর্শকনন্দিত হলেই এরপর মুক্তিপ্রতীক্ষিত সব সিনেমার প্রযোজক-পরিচালকেরা নতুন আশা ও স্বপ্নে বুক বাঁধতে পারেন। তাই এমন সিনেমাকে দর্শকদের সাপোর্ট করা উচিত। দেশের চলচ্চিত্র এগিয়ে নিতে হলে দর্শক-সাপোর্ট যেমন প্রয়োজন, ঠিক তেমনি প্রয়োজন ভালো মানের সিনেমা। দর্শকের পদচারণে মুখর হোক আমাদের সিনেমা হলের পরিবেশ।’

দেশের প্রেক্ষাগৃহে ৩ ডিসেম্বর মুক্তি পেয়েছে আরিফিন শুভ অভিনীত বহুল প্রতীক্ষিত ছবি ‘মিশন এক্সট্রিম’। ছবিটির মুক্তি উপলক্ষে প্রচারণার কমতি রাখেননি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। নানান ধরনের প্রচার কার্যক্রম চালিয়েছেন নির্মাতা ও শিল্পীরা। এই ছবিতে অভিনয় করেছেন আরিফিন শুভ, তাসকিন রহমান, জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী, সাদিয়া নাবিলা, সুমিত সেনগুপ্ত, রাইসুল ইসলাম আসাদ, ফজলুর রহমান বাবু, শতাব্দী ওয়াদুদ, মাজনুন মিজান, ইরেশ যাকের, মনোজ প্রামাণিক, আরেফ সৈয়দ, সুদীপ বিশ্বাস, রাশেদ মামুন অপু, এহসানুল রহমান, দীপু ইমামসহ অনেকে।