default-image

ঢালিউড চলচ্চিত্রের খ্যাতনামা প্রযোজক নাসিরউদ্দিন দিলু আর নেই। আজ মঙ্গলবার আনুমানিক সকাল ১০টায় তিনি রাজধানীর একটি হাসপাতালে শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেছেন। খবরটি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ প্রযোজক ও পরিবেশক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম। তিনি জানান, তিন দিন আগে প্রযোজক সমিতির সাবেক এই নেতা হঠাৎ করেই বাসায় পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পান। পরে তাঁর অবস্থা গুরুতর হলে সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সে সময় পরীক্ষায় তাঁর করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে শারীরিক সমস্যা বাড়তে থাকে।

বিজ্ঞাপন

জানা যায়, আগে থেকেই তিনি শারীরিকভাবে কিছুটা দুর্বল ছিলেন। তাঁর হার্টেও কিছুটা সমস্যা ছিল। সেটা খুব জটিল ছিল না। করোনাকালীন বেশির ভাগ সময় তিনি বারিধারার বাসাতেই থাকতেন। হঠাৎ করে গত ৩১ অক্টোবর তিনি পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পান। এ সময় তাঁর মাথা ফেটে রক্তক্ষরণ হয়। পরে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সে সময় হাসপাতাল থেকে চিকিৎসকেরা তাঁর করোনা পরীক্ষা করালে কোভিড পজিটিভ ধরা পড়ে। খোরশেদ আরও জানান, ‘তাঁর মাথায় আঘাত এবং করোনার কারণে শ্বাসপ্রশ্বাসে সমস্যা বাড়তে থাকলে শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ হয়। তাঁকে দুই দিন আইসিইউতে রাখা হয়। তিনি বলেন,‘দিলু ভাইয়ের বার্ধক্যজনিত কিছু শারীরিক সমস্যা ছাড়া তিনি ভালোই ছিলেন। হঠাৎ এভাবে তাঁর চলে যাওয়া আমাদের চলচ্চিত্রের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল। তিনি ছিলেন আমাদের অভিভাবক। তিনি চলচ্চিত্র নিয়ে ভাবতেন। দেশে সিনেমা এগিয়ে নেওয়ার জন্যও তিনি সব সময় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতেন।’ জানা যায়, আজ বারিধারা মসজিদে তাঁর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। পরে তাঁকে বনানী কবরস্থানে সমাহিত করা হবে।

default-image

নাসিরউদ্দিন দিলুর ঢালিউড চলচ্চিত্রে ৪০ বছরের ক্যারিয়ার। প্রযোজক হিসেবে তাঁর ক্যারিয়ার শুরু হয় ‘সোনার চেয়ে দামি’ ছবি দিয়ে। তিনি, ‘রূপের রানি গানের রাজা’, ‘বুকের ধন’, ‘কাবিন’, ‘সাহস’, ‘ফাঁসির আসামি’, ‘ভালোবাসা’, ‘নাচে নার্গিস’সহ বেশ কিছু সিনেমা প্রযোজনা করেন। প্রযোজক সমিতির তথ্যমতে, সর্বশেষ নাসিরউদ্দিন দিলু ‘মহান’ নামে একটি সিনেমা বানিয়েছিলেন। নাসিরউদ্দিন দিলু বাংলাদেশ প্রযোজক ও পরিবেশক সমিতির সদস্য দিয়ে দায়িত্ব পালন শুরু করেন। এ ছাড়া একবার সহকারী সাধারণ সম্পাদক, দুই মেয়াদে সাধারণ সম্পাদক, দুবার ছিলেন সহসভাপতি। একবার তিনি সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। বাংলাদেশ প্রযোজক ও পরিবেশক সমিতির তথ্যমতে, তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0