বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

ওই নোটিশে লেখা হয়েছে, ৩০ দিনের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত পরীমনির সব ধরনের অশ্লীল ছবি ও ভিডিও অপসারণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের পাশাপাশি ভবিষ্যতে সব ধরনের অশ্লীল সংলাপ, অভিনয়, অঙ্গভঙ্গি, নগ্ন বা অর্ধনগ্ন নৃত্য; যা চলচ্চিত্র, ভিডিও চিত্র, অডিও ভিজ্যুয়াল চিত্র, স্থিরচিত্র, গ্রাফিকস বা অন্য কোনো উপায়ে ধারণ করা ও প্রদর্শনযোগ্য এবং যার কোনো শৈল্পিক বা শিক্ষাগত মূল্য নেই, এসব করা থেকে সম্পূর্ণরূপে বিরত থাকার জন্য লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

আজ রেজিস্ট্রি ডাকযোগে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বিএফডিসির ঠিকানায় পরীমনিকে এ নোটিশ দিয়েছে অ্যাডভোকেট হাসান অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস। সেখানে আরও বলা হয়েছে, গত ২৪ অক্টোবর ঢাকার রেডিসন ব্লু হোটেলে ৩০তম জন্মদিনে অশালীন পোশাকে তিনি যে অঙ্গভঙ্গি করেছেন, তারও উল্লেখ করা হয়েছে। বলা হয়েছে, পরীমনির সেই পার্টির ভিডিওতে নারীরাই বেশি নেতিবাচক মন্তব্য করেছেন।

নোটিশ প্রসঙ্গে জানতে পরীমনির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমি এখনো নোটিশ হাতে পাইনি। পাওয়ার পর এ নিয়ে কথা বলতে পারব।’ তিনি আরও বলেন, এর আগে আদালত থেকে আমাকে যখন বলা হয়েছিল তখন ১ ঘণ্টার মধ্যে ছবিগুলো সরিয়ে ফেলি। এখন যে ভিডিওর কথা বলা হয়েছে, সেগুলো আমি শেয়ার করিনি। বরং আমার ব্যক্তিগত ভিডিও অন্য কেউ ফেসবুকে দিয়েছে। নোটিশ হাতে না পেলেও বিভিন্ন গণমাধ্যমে আজকের খবরটি পেয়েছি। দেখে আমি অসুস্থ হয়ে পড়েছি। এমন অত্যাচারের মানে হয় না।

default-image
ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন