বিদ্যা সিনহা মিম
বিদ্যা সিনহা মিমছবি: ফেসবুক

বছরে এক দিন পান্তা ভাত খান ঢালিউড তারকা বিদ্যা সিনহা মিম। সেটি বাংলা বছরের প্রথম দিন। আজ নানা রকম ভর্তা দিয়ে পান্তা খাবেন তিনি। বৈশাখী সাজপোশাকে আসবেন ফেসবুক লাইভে।
এরই মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন মিম। গত মাসে ভাইবোনদের সঙ্গে গিয়ে করোনার প্রথম ডোজ টিকা গ্রহণ করেছেন। বাংলা নতুন বছরের শুরুর দিন ফেসবুক লাইভে অনুরাগী ও অনুসারীদের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি সবাইকে সচেতন করবেন মিম। তিনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি যেহেতু অনেক খারাপ, ফেসবুকে লাইভে তাই সবাইকে বাড়িতে থাকার পরামর্শ দিতে চাই। বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি পরিবারের সঙ্গে সবাইকে সময় কাটাতে বলব।’

default-image

লকডাউনে বাড়িতে থাকতে হবে। এ সময় সব রকম শুটিং থেকে বিরত থাকবেন মিম।  কীভাবে কাটাবেন সময়গুলো? মিম বলেন, ‘মাঝে ওজন বেশ খানিকটা বেড়ে গিয়েছিল। তারপর হলো করোনা। দুর্বলতা এখনো না কাটলেও গত মাস থেকে ব্যায়াম শুরু করেছি। গত বছর লকডাউনে প্রচুর খাওয়াদাওয়া করেছিলাম, কিন্তু এবার আর সেটা করছি না। ব্যায়ামের পাশাপাশি মুভি দেখব, বই পড়ব আর মা–বাবার সঙ্গে গল্প করে সময় কাটাব। সবকিছু স্বাভাবিক হলে কাজ অনেক করা যাবে।’

default-image
বিজ্ঞাপন

তবে নববর্ষ বাড়িতে বসে কাটাতে হচ্ছে বলে কিছুটা মন খারাপ মিমের। কারণ, এই সময়ে বেশ কিছু অনুষ্ঠান থাকে বিভিন্ন টেলিভিশনে, থাকে নানা রকম কাজের সুযোগ। সেসব অনুষ্ঠানে গেলে অনেকের সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ হয়।

default-image

এবারে সেই সুযোগটা পাওয়া যাচ্ছে না বলে আফসোস হচ্ছে এই অভিনয়শিল্পীর। তিনি বলেন, ‘পয়লা বৈশাখে আমাদের ফিল্ম রিলিজ হয়, টিভিতে বিশেষ অনুষ্ঠান থাকে। অথচ এবার সেসব হচ্ছে না। গত বছর পয়লা বৈশাখ বাড়িতে বসে কাটিয়েছি। এ বছরও তাই করতে হবে। কিন্তু কিছু করার নেই। কারণ, সচেতন না হলে সংক্রমণ বাড়বে। আগে সবাইকে সুস্থভাবে বাঁচতে হবে।’

default-image

এপ্রিল মাসেই ‘ইত্তেফাক’ ছবির শুটিং করার কথা ছিল। কিন্তু করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সেটা আর সম্ভব হয়নি। শুটিং আবার কবে শুরু হবে, সে বিষয়ে কোনো আগাম ধারণাও দিতে পারেননি মিমদের ছবিটির পরিচালক। তবে বিদেশি একটি স্টিমিং প্ল্যাটফর্মের ওয়েব ফিল্মের জন্য শুটিং শেষ করেই ঘরে ঢুকেছেন মিম। এ ছাড়া করেছেন বেশ কিছু বিজ্ঞাপনের কাজ।

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন