ভিডিও বার্তায় মাহিকে কালো কাপড়ে ঘোমটা ও কালো মাস্কে মুখ ঢাকা অবস্থায় দেখা যায়। তিনি বলেন, ‘আমি মাহি, মক্কার হারাম শরিফ থেকে বলছি। আপনারা জানেন, আমরা ওমরাহ পালন করতে এসেছি। এ জন্য ফোন রিসিভ করছি না। ইবাদত করতে এসেছি, সেটাই ঠিকমতো করতে চাই। যেটা বলার জন্য ভিডিওটা করেছি সেটা হচ্ছে, আমি সেদিনও ভীষণ বিব্রত ছিলাম। নিজের আত্মসম্মানে সেদিন কতটা আঘাত লেগেছে, সেটা আমি জানি আর আমার আল্লাহ জানেন এবং আজ আরও একবার আমি বিব্রত হলাম। নিজের কাছে ছোট হলাম, দেশবাসীর কাছে আরও একবার ছোট হলাম।’

ওই অশালীন ফোনালাপ প্রসঙ্গে মাহি বলেন, ঘটনাটি দুই বছর আগের। সে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আপনারা নিজে থেকে ভেবে দেখবেন, এ রকম ভাষা বা ব্যবহারের প্রত্যুত্তর আমার আসলে কী দেওয়ার ছিল? সেদিন আমার কিছু বলার ভাষা ছিল না। আমি সে জন্য কোনো প্রতিবাদ করিনি। যেভাবে পেরেছি, পাশ কাটিয়ে যাওয়া উচিত বলে মনে হয়েছে, আমি পাশ কাটিয়ে গেছি। এটা দুই বছর আগের একটা ঘটনা। বরাবরের মতো আমি আল্লাহর কাছে বলেছি, আমি কষ্ট পেয়েছি। যে কষ্ট দিয়েছেন, সেই ফল তিনি পেয়েছেন।’

default-image

পরিস্থিতির ব্যাখ্যা দিয়ে মাহি আরও বলেন, ‘এই বিষয় নিয়ে এখান থেকে কথা বলার মানসিকতা আমার নেই। আমি দোষী কি না, আপনারা নিজের জায়গা থেকে চিন্তা করবেন। আমাদের জন্য সবাই দোয়া করবেন। আমাদের ওমরাহ যেন আল্লাহ কবুল করেন। আমার কোনো দোষ ছিল না। আমি একটা পরিস্থিতির শিকার ছিলাম।’

ঢালিউড থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন